• সোমবার, আগস্ট ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৮ রাত

পররাষ্ট্রমন্ত্রী: শেখ হাসিনাকে ২৩ বার হত্যার চেষ্টা হয়েছে

  • প্রকাশিত ১০:১৫ রাত মে ১৬, ২০১৯
পররাষ্ট্রমন্ত্রী
বৃহস্পতিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন। ছবি: ইউএনবি

'দেশবাসীকে সতর্ক থাকতে হবে, কেউ যেন তার কোনো ক্ষতি করতে না পারে'

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন বলেছেন, "প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ দেশের জন্য আশীর্বাদ। তাকে মারার জন্য কমপক্ষে ২৩ বার চেষ্টা করা হয়েছে। দেশবাসীকে সতর্ক থাকতে হবে, কেউ যেন তার কোনো ক্ষতি করতে না পারে"। বৃহস্পতিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, "শেখ হাসিনা টিকে থাকলে আমরা উন্নয়নের সব লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করে বাংলাদেশকে উন্নত দেশে রূপান্তরিত করতে পারব। প্রধানমন্ত্রী দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। তার নেতৃত্বের দৃঢ়তার কারণে এ সাফল্য এসেছে"।

২০০৯ সাল থেকে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশে অভাবনীয় সাফল্য এসেছে উল্লেখ করে ড. মোমেন আরও বলেন, "মাথাপিছু আয় গত কয়েক বছরে কয়েকগুণ বেড়েছে। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ১০ গুণ বেড়েছে। বর্তমান অতিদারিদ্রের হার শতকরা ১১ ভাগ। আগামী পাঁচ বছরে তা শতকরা পাঁচ ভাগে নামিয়ে আনা সম্ভব হবে"।

আবদুল মোমেনের মতে, তিনটি বিষয়ে শেখ হাসিনার অবদান অসামান্য। সেগুলো হলো- বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী ভিত্তির ওপর দাঁড় করানো, দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা এবং বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা।

"আইন সবার জন্য সমান। তবে দেশে ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ জারি করে আইনের শাসনের ব্যত্যয় ঘটানো হয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী এ অধ্যাদেশ বিতাড়ন করেছেন। যারা খুনি তারা শাস্তি পাচ্ছেন। যারা আইনের বিপক্ষে তাদের শাস্তি নিশ্চিত করছেন প্রধানমন্ত্রী"।

বঙ্গবন্ধু একডেমির সহ-সভাপতি শেখ ইকবাল খোকনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি আব্দুল বাসেত মজুমদার, ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্দুল মান্নান চৌধুরী প্রমুখ।