• শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:৫৫ দুপুর

প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে দেওয়া হয় গাছে

  • প্রকাশিত ০২:৫২ দুপুর মে ১৮, ২০১৯
বান্দরবান

‘ঘটনার দীর্ঘ ছয় মাস পর বিভিন্ন সময়ে ত্রিমথীয় ত্রিপুরা, জয় কুমার তঞ্চঙ্গ্যা ও জন ত্রিপুরা নামে তিনজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তারা প্রত্যেকেই হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।’

বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় লাকাচিং তংঞ্চঙ্গ্যা (৩২) নামের প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণের পর গলাটিপে হত্যা করে লাশটি গাছে ঝুঁলিয়ে রাখা হয়েছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ।  

সম্প্রতি পুলিশের অভিযানে গ্রেপ্তার হওয়া তিন যুবক জিজ্ঞাসাবাদে এই ঘটনার দায় স্বীকার করেছেন। গ্রেফতারকৃত হলেন- ত্রিমথীয় ত্রিপুরা, জয় কুমার তঞ্চঙ্গ্যা ও জন ত্রিপুরা । এরা সবাই আলীকদম উপজেলার বাসিন্দা ।

পুলিশ জানায়,  ২০১৮ সালের ২৫ নভেম্বর উপজেলার আমতলী অসুখ পাড়ার একটি গাছ থেকে লাকাচিং তঞ্চঙ্গ্যার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত লাকাচিং উপজেলার আমতলী আশ্রয়ণ প্রকল্পের বাসিন্দা ছিলেন। 

বান্দরবান সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হওয়ার পর নিহতের বোনের ছেলে ক্যানুমং তংঞ্চঙ্গ্যা বাদী হয়ে আলীকদম থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। ঘটনায় দীর্ঘ তদন্ত শেষে গত কয়েকদিনে এই তিন যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

আলীকদম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিক উল্লাহ বলেন, “ঘটনার দীর্ঘ ছয় মাস পর বিভিন্ন সময়ে ত্রিমথীয় ত্রিপুরা, জয় কুমার তঞ্চঙ্গ্যা ও জন ত্রিপুরা নামে তিনজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তারা প্রত্যেকেই হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।” 

মামলার বাদী ক্যানুমং তঞ্চঙ্গ্যা বলেন,  “আসল ঘটনা  উদঘাটন ও আসামিদের গ্রেপ্তার করায় লাকাচিং এর আত্মা শান্তি পাবে।” এখন আদালত আসামীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিবে এমনটাই আশা করি আমরা ।