• রবিবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪২ রাত

‘আর্থিক সুবিধা’ নিয়ে ৩ জুয়াড়িকে ছেড়ে দিল পুলিশ

  • প্রকাশিত ০৫:০৪ সন্ধ্যা মে ১৯, ২০১৯
টাঙ্গাইল

নাগরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলম চাঁদ বলেন, ‘এটি মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন। তবে যদি কেউ এমন কাজ করে থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে তিন জুয়াড়িকে আটকের পর ‘আর্থিক সুবিধা’ নিয়ে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে থানা পুলিশের বিরুদ্ধে। 

১৮ মে, শনিবার দিবাগত রাতে অজ্ঞাত কারণে তাদেরকে থানা থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

এর আগে শনিবার সকালে নাগরপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মামুন মৃধা সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে উপজেলার চামটা মির্জাপুর থেকে জুয়া খেলারত অবস্থায় দুলাল, মজনু ও হাইসাব নামের তিন জুয়াড়িকে আটক করে। 

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার চামটা মির্জাপুর গ্রামের মিজানুরের বাড়িতে তাস দিয়ে জুয়া চলছে, এমন খবরের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালায় পুলিশ। অভিযানে একই গ্রামের সাহাবুদ্দিনের ছেলে দুলাল, নিয়ামত খানের ছেলে মজনু ও কাসেম মিয়ার ছেলে হাইসাবকে আটক করলেও বাকীরা পালিয়ে যায়। 

অভিযোগ উঠেছে, আটককৃতদের আদালতে না পাঠিয়ে রাতে মোটা অঙ্কের উৎকোচ গ্রহণের মাধ্যমে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। 

তবে উৎকোচ গ্রহণের বিষয়টি অস্বীকার করলেও জুয়াড়িদের ছেড়ে দেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে নেন এসআই মামুন মৃধা। 

তিনি বলেন, “জুয়াড়িদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।” 

উৎকোচ নিয়ে জুয়াড়িদের ছেড়ে দেওয়ার বিষয়ে নাগরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলম চাঁদ বলেন, “এটি মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন। তবে যদি কেউ এমন কাজ করে থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”