• বৃহস্পতিবার, আগস্ট ২২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:২২ রাত

কিশোরীকে 'ধর্ষণ', 'জিন সাধক' গ্রেপ্তার

  • প্রকাশিত ০৯:৩৪ রাত মে ১৯, ২০১৯
ধর্ষণ
প্রতীকী ছবি

মামলা এজহার সূত্রে জানা যায়,  জিন সাধক ও কবিরাজ হিসেবে মন্টু পচা ব্যাপক পরিচিত।

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় ১৪ বছরের এক কিশোরীকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

আজ রোববার  ভুক্তভোগী ওই কিশোরীর বাবা বাদি হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন- কথিত 'জিন সাধক ও কবিরাজ' মিন্টু ওরফে মন্টু পচা (৪৩) ও তার সহযোগী মাহাদী হাসান খান (২৭)। 

এর আগে শনিবার বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কদমতলী এলাকা থেকে দুজনকে গ্রেপ্তার ও অপহৃত কিশোরীকে উদ্ধার করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শামীম আহমেদ।  

মামলা এজহার সূত্রে জানা যায়,  জিন সাধক ও কবিরাজ হিসেবে মন্টু পচা ব্যাপক পরিচিত। সেই সুবাদে ভুক্তভোগী অসুস্থ ওই কিশোরীর সঙ্গে মন্টুর পরিচয় হয়। গত ৮ মে মন্টু তাকে অপহরণ করে কুমিল্লায় অজ্ঞাতস্থানে নিয়ে যান। 

পরের দিন ৯ মে কিশোরীর বাবা সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করলে পুলিশ কিশোরীকে উদ্ধারের জন্য বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে। পরে পুলিশ জানতে পারে কবিরাজ মন্টু মিয়া সিদ্ধিরগঞ্জের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কদমতলী এলাকায় অবস্থান করছে। সেখানে অভিযান চালিয়ে একটি ঘর থেকে কিশোরীকে উদ্ধার ও দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।  উদ্ধারের পর নির্যাতনের বিষয়টি কিশোরী তার পরিবারকে জানায়। 

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এসআই শামীম আহমেদ জানান, মামলা দায়েরের পর অভিযুক্তদেরকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। কিশোরীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।