• শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:১৯ রাত

অস্ত্রসহ আওয়ামী লীগ নেতা আটক

  • প্রকাশিত ০৩:৫১ বিকেল মে ২০, ২০১৯
আটক
নরসিংদীর পলাশে অভিযান চালিয়ে গুলি ভর্তি পিস্তল ও দেশীয় অস্ত্রসহ ডাঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আজহার খন্দকারকে আটক করেছে র‍্যাব। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

আটক আজহার দীর্ঘদিন ধরে পলাশ থানার ডাংগা এলাকায় চাঁদাবাজি, ছিনতাই, ডাকাতিসহ নানা সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে রেখেছিল বলে র‍্যাব জানিয়েছে

নরসিংদীর পলাশে অভিযান চালিয়ে গুলি ভর্তি পিস্তল ও দেশীয় অস্ত্রসহ এক আওয়ামী লীগ নেতাকে আটক করেছে র‌্যাব-১১ এর সদস্যরা। রবিবার রাতে ডাঙ্গা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়।

আটক আজহার খন্দকার (৫০) পলাশ উপজেলার ডাঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি। র‌্যাব-১১ এর সিপিএসসি, আদমজীনগর, নারায়ণগঞ্জ এর কোম্পানী কমান্ডার মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

র‌্যাব জানায়, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১ এর একটি আভিযানিক দল রবিবার গভীর রাতে পলাশের ডাংগা গ্রামে বিশেষ অভিযান চালিয়ে মোঃ আজহার খন্দকার কে আটক করে।

এ সময় তার হেফাজত থাকা ১টি বিদেশী পিস্তল, ২ রাউন্ড পিস্তলের গুলি, ১টি লোডেড ম্যাগাজিন, ০১টি ধারালো কিরিস, ২টি চাইনিজ কুড়াল, ০১ টি হাইসা ও ০৫টি রামদা উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব আরও জানায়, আটক আজহার দীর্ঘদিন ধরে পলাশ থানার ডাংগা এলাকায় চাঁদাবাজি, ছিনতাই, ডাকাতিসহ নানা সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে রেখেছিল। তার অত্যাচার ও নির্যাতনের ভয়ে সংক্ষুদ্ধ জনগণ কথা বলার এবং এর প্রতিকার চাওয়ার সাহস পেতো না। সে প্রকাশ্যে অস্ত্র প্রর্দশন ও ভয়ভীতি দেখিয়ে নিয়মিত চাঁদাবাজি করতো। এ সকল সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার কারণে দীর্ঘদিন যাবৎ র‌্যাব-১১ এর একটি বিশেষ দল তার উপর গোয়েন্দা নজরদারী চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।

সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ও বিভিন্ন অপরাধে তার বিরুদ্ধে নরসিংদীর বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে বলে র‍্যাব জানিয়েছে।