• বুধবার, অক্টোবর ২৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:২৭ রাত

শতোর্ধ বৃদ্ধাকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করলো সেই কিশোর

  • প্রকাশিত ০৮:৪৪ রাত মে ২৩, ২০১৯
ধর্ষণ
প্রতীকী ছবি

২২ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন ভুক্তভোগী বৃদ্ধাও

টাঙ্গাইলের মধুপুরে শতোর্ধ বৃদ্ধাকে ধর্ষণের ঘটনায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে অভিযুক্ত কিশোর। বৃহস্পতিবার বিকেলে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুমন কুমার কর্মকারের আদালতে ৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি প্রদান করে সে।

শুনানি শেষে ওই সোহেলকে আদালতে প্রেরণ করার নির্দেশ দেন আদালত। একই দিন ভুক্তভোগী বৃদ্ধাও ২২ ধারায় আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নওরীন মাহমুবা তার জবানবন্দি লিপিবদ্ধ করেন।

অভিযুক্ত কিশোর জবানবন্দিতে আদালতকে জানায়, কেউ না থাকার সুযোগে ওই বৃদ্ধাকে সে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। 

২২ ধারায় জবানবন্দিতে ভুক্তভোগী বৃদ্ধা আদালতকে বলেন, "ওই ছেলে আমাকে জোরপূর্বক ধর্ষক করেছে।  ঘটনার সময় আমি রোজা ছিলাম। আমি রোজা রেখে তার কাছে মাফ চেয়েছিলাম, কিন্তু সে উল্টো আমার উপর পাশবিক নির্যাতন চালায়"।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও মধুপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জুবাইদুল হক ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "গ্রেফতার কিশোর দোষ স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। ভুক্তভোগী বৃদ্ধাও আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। পরে জবানবন্দি শেষে আদালতের নির্দেশে ওই কিশোরকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আমার জানা মতে পৃথিবীতে এতো বৃদ্ধ বয়সে ধর্ষণের শিকার আর কেউ হননি। এটি একটি ন্যাক্কারজনক ঘটনা"।   

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর ওই বৃদ্ধার ঘরে ঢুকে মুখ বেঁধে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে অভিযুক্ত কিশোর। এ ঘটনায় বাদী হয়ে মধুপুর থানায় মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী বৃদ্ধার ছেলে।