• রবিবার, অক্টোবর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৪০ সন্ধ্যা

খুলনায় ইয়াবাসহ ধরা পড়ায় দুই ছাত্রলীগ নেতা আটক

  • প্রকাশিত ১০:২১ সকাল মে ২৬, ২০১৯
খুলনা ছাত্রলীগ
খুলনা মহানগরীর খালিশপুর থানা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ পলাশ শিকদারকে ২০ পিস ইয়াবাসহ আটক করেছে পুলিশ।ছবি: সংগৃহীত

সংগঠন বিরোধী কর্মকান্ডের সাথে সংশ্লিষ্ট থাকার অভিযোগে থানা সাংগঠনিক সম্পাদক পলাশ শিকদারকে বহিস্কার করেছে নগর ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ

খুলনা মহানগরীর খালিশপুর থানা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ পলাশ শিকদারকে ২০ পিস ইয়াবাসহ আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার (২৫ মে) বেলা পৌনে ৩টায় বাস্তহারা কলোনী থেকে পলাশ শিকদারকে আটক করা হয়। এ সময় তার সহযোগী জাহিদুল ইসলাম জ্যোতি নামে আরো একজনকে আটক করা হয়।

 সংগঠন বিরোধী কর্মকান্ডের সাথে সংশ্লিষ্ট থাকার অভিযোগে পলাশ শিকদারকে বহিস্কার করেছে নগর ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ। নগর ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক শাহীন আলম স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ বহিস্কারাদেশ জানানো হয়।

খালিশপুর থানার ওসি সরদার মোশারেফ হোসেন জানান, “গোপনে ইয়াবা বিক্রির সংবাদ পেয়ে বাস্তহারায় অভিযান চালায় খালিশপুর থানার টহল পুলিশের একটি দল। এ সময় দৌলতপুর থানার পাবলা কবির বটতলা এলাকার জাহিদুল ইসলাম জ্যোতিকে ২০ পিস ইয়াবাসহ আটক করে।”

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে জ্যোতি ছাত্রলীগ নেতা পলাশ শিকদারের (২৫) কাছ থেকে ইয়াবা গুলি কিনেছে বলে জানায়। পরে পুলিশ পলাশকে ধরতে অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পলাশ পালিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ তাকে পাকড়াও করে। পলাশ বাস্তহারা এলাকার বাসিন্দা। জ্যোতি কবিরবটতলা এলাকার বাসিন্দা। এ ঘটনায় ওই দু’জনকে আসামি করে এসআই মনির বাদী হয়ে খালিশপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পালাশ দীর্ঘদিন থেকে বাস্তহারা এলাকায় কথিত এক নারী নেত্রীর ছত্রছায়ায় মাদকের ব্যবসা করে আসছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। ছাত্রলীগ নেতা পলাশ শিকদারের নামে চাঁদাবাজী, মারামারি, মাদকসহ ৫ টি মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে। 

মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রাসেল জানান, “পলাশ শিকদার থানা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। ইয়াবাসহ আটক হওয়ায় দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে তাকে।”

মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি শাহজালাল সুজন জানান, “খালিশপুর থানার ওসি তাকে ফোন করে ঘটনাটি জানান। এরপরই দলীয়ভাবে জরুরী আলোচনা করে পলাশ শিকদারকে বহিস্কার করা হয়।”