• শনিবার, আগস্ট ২৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:২৫ রাত

প্রধানমন্ত্রী: সব দেশ এক সাথে কাজ করলে এশিয়া বিশ্বে কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে পারবে

  • প্রকাশিত ০৬:০৮ সন্ধ্যা মে ৩০, ২০১৯
শেখ হাসিনা-শিনিচি কিতাওকা
বৃহস্পতিবার টোকিওতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাৎ করেন জাইকা প্রেসিডেন্ট শিনিচি কিতাওকা। ছবি: ফোকাস বাংলা

জাপানকে আদর্শ হিসেবে গ্রহণ করে বাংলাদেশ জাপানের মতোই কৃষি-ভিত্তিক দেশ থেকে শিল্প-ভিত্তিক দেশে পরিণত হচ্ছে

সব দেশ এক সাথে কাজ করলে এশিয়া বিশ্বে কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে পারবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার টোকিওতে জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সির (জাইকা) প্রেসিডেন্ট শিনিচি কিতাওকার সাথে সাক্ষাতকালে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন বলে সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন তার ভাষণ লেখক মো. নজরুল ইসলাম।

শেখ হাসিনা বলেন, "এশিয়ায় উন্নত, উন্নয়নশীল ও স্বল্পোন্নত দেশ রয়েছে। যদি এশিয়ার সব দেশ এক সাথে কাজ করতে পারে তাহলে এটি বিশ্বে কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে পারবে। আমাদের সেই সম্ভাবনা আছে।"

এসময় প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, জাপান ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর থেকেই এ দেশের কাছের বন্ধু এবং তারা বাংলাদেশকে সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে।

"১৯৭১ সালে স্বাধীনতার পর যুদ্ধ-বিধ্বস্ত বাংলাদেশ গড়ার কাজে সাহায্য করতে এগিয়ে আসা দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম ছিল জাপান", যোগ করেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, "জাপানকে আদর্শ হিসেবে গ্রহণ করে বাংলাদেশ জাপানের মতোই কৃষি-ভিত্তিক দেশ থেকে শিল্প-ভিত্তিক দেশে পরিণত হচ্ছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানও সেটাই চেয়েছিলেন"।

এসময় তিনি দক্ষতা উন্নয়নে তরুণদের প্রশিক্ষণ দেয়ার জন্য বাংলাদেশে একটি প্রশিক্ষণকেন্দ্র স্থাপন করতে জাইকা প্রেসিডেন্টকে অনুরোধ জানান।

জাইকা প্রেসিডেন্ট শিনিচি কিতাওকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উচ্চ প্রবৃদ্ধিকে অসাধারণ বলে আখ্যায়িত করেন।

তিনি বলেন, "বাংলাদেশের সাথে গবেষণা কর্মসূচি জোরদার করা হবে, কারণ তারা এতে গুরুত্ব দিচ্ছেন। আমাদের অভিজ্ঞতা ও জ্ঞান বাংলাদেশে মানবসম্পদ উন্নয়নে ব্যবহার করা যেতে পারে।" জাইকা বাংলাদেশে আরও বেশি মানুষকে প্রশিক্ষণ দেয়ার জন্য একটি কর্মসূচি নিয়েছে বলেও জানান তিনি।

এছাড়াও বুধবার জাপানের প্রধানমন্ত্রীর সাথে সফল বৈঠকের ফলে জাইকা আরও ঘনিষ্ঠভাবে বাংলাদেশের সাথে কাজ করতে পারবে বলেও আশা প্রকাশ করেন শিনিচি কিতাওকা।

তিনি জানান, বাংলাদেশ ও জাপান ২০২২ সালে তাদের সম্পর্কের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করবে।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক মো. আবুল কালাম আজাদ, পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক ও জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা এ সময় বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।