• সোমবার, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:০৫ সন্ধ্যা

পলক: নির্বাচনী এলাকায় আমি প্রতিমন্ত্রী না, সকলের ভাই-বন্ধু-ছেলে

  • প্রকাশিত ০৫:৫৫ সন্ধ্যা জুন ২, ২০১৯
জুনাইদ আহমেদ পলক
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। ফাইল ছবি।

'আমি পা-ফাটা কৃষকের সন্তান'

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, "নির্বাচনী এলাকায় আমি কোন এমপি কিংবা প্রতিমন্ত্রী না। এখানে আমি কারো ভাই, কারো বন্ধু, কারো ছেলে, কারো আশার স্থল"।

রবিবার আসন্ন ঈদুল ফিতর উদযাপন বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী ঢাকা ট্রিবিউনকে এ কথা জানান।

"আমি চলন বিলের সন্তান। আমি পা-ফাটা কৃষকের সন্তান। চলনবিলবাসীর ভালোবাসার বলয়েই আমার অবস্থান। তাই ওই বলয়ের মধ্যেই হবে আমার ঈদ", যোগ করেন তিনি।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, "আমি সপ্তাহের ৭দিনের মধ্যে অন্তত ২ দিন আমার নির্বাচনী এলাকা চলনবিলের সিংড়ায় কাটাই। এ সময় আমার কোন সিকিউরিটি প্রয়োজন হয়না। চলনবিলবাসীই আমাকে তাদের ভালোবাসার বলয়ে নিরাপত্তা দিয়ে রাখেন"।

তিনি আরো বলেন, "আমি চলনবিলবাসীর ভালোবাসায় সিক্ত। তাদের এই ভালোবাসার সমর্থনেই আমি প্রতিমন্ত্রী হয়েছি। আমি নির্বাচনী এলাকায় কখনও মোটরসাইকেলে,কখনও পায়ে হেঁটে সিংড়াবাসীর উন্নয়ন আর সমস্যা সমাধানে শতভাগ নিরাপত্তার আস্থা আর মনোভাব নিয়ে নিয়োজিত থাকি। চলনবিলবাসীর যেকোনো উন্নয়নে যখন তাদের চোখে-মুখে আনন্দের রেখা ফুটে উঠে, সে সময় আমি সবচেয়ে বেশি আনন্দিত হই"। 

"যখন কোনো মানুষের চিকিৎসা সেবায় অর্থ সমস্যা,রাস্তা-ঘাটে যাতায়াতের সমস্যা, বেকার জীবনের সমস্যা ইত্যাদির খবর পাই তখন নিজেকে চলনবিল পরিবারের সদস্য হিসেবে ধরে রাখতে পারিনা। ছুটে যাই তাদের কাছে। সমস্যার সমাধান করেই আমি অর্জন করি তৃপ্তি, এই পা-ফাটা মানুষগুলোর নিখাঁদ ভালোবাসা। এভাবেই আজ আমি তাদের ভালোবাসার বলয়ে বাঁধা। আমার ঈদ হবে চলনবিলবাসীর ওই ভালোবাসার বলয়ের মধ্যেই", বলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী।

সিংড়া এখন এক শান্তির আবাসভূমির নাম উল্লেখ করে করে পলক বলেন, "এখানে বসবাসকারী সকল শ্রেণী, পেশা, বয়স আর মতের হাসিখুশিমাখা মানুষগুলোর হাসি আর সুখকে ধরে রাখা আর শান্তি, সুখকে বৃদ্ধি করতে নিরলস পরিশ্রম করাই আমার জীবনের ব্রত হিসেবে বেছে নিয়েছি"।