• শনিবার, জুলাই ১১, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:১১ দুপুর

পোশাক শ্রমিকদের বিআরটিসির বাস খাতা-কলমে আছে, বাস্তবে নেই

  • প্রকাশিত ০৪:১৭ বিকেল জুন ৩, ২০১৯
বিআরটিসি
সোমবার বেলা ১১টার দিকে গাজীপুর মহানগরের টেকনগপাড়া এলাকার বিআরটিসি ক্যাম্পাসে গিয়ে দেখা যায় বিভিন্ন বাসে “ঈদ স্পেশাল সার্ভিস’’ স্টিকার লাগানো হচ্ছে। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

এমনকি এই বাস সার্ভিসের কথা জানেন না অনেক শ্রমিকও

গাজীপুরে শ্রমিকদের বহনে ঘোষিত বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট করপোরেশন (বিআরটিসি) বাস সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত কোথাও দেখা যায়নি। গাড়ীর ছেড়ে যাওয়ার স্টেশন বা নির্ধারিত সিডিউলের বিষয়েও বিআরটিসি কর্তৃপক্ষ কিছু জানাতে পারেননি।

সোমবার বেলা ১১টার দিকে গাজীপুর মহানগরের টেকনগপাড়া এলাকার বিআরটিসি ক্যাম্পাসে গিয়ে দেখা গেছে, বিভিন্ন বাসে “ঈদ স্পেশাল সার্ভিস’’ স্টিকার লাগানো হচ্ছে। বাসগুলো ক্যাম্পাস থেকে বের করে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে সারিবদ্ধ করে রাখা হচ্ছে।

ঈদ উপলক্ষ্যে সরকারের স্পেশাল যাতায়াত ব্যবস্থাপনা বরাদ্দ জানেন না বলেও জানালেন একই কারখানার অপারেটর আরিফুল ইসলাম, মুনসুর আহমেদ ও তাদের সহকর্মীরা। তারা জানান, ঈদ উপলক্ষ্যে বিআরটিসির কোনো বরাদ্দের বিষয়ে বিআরটিসি কিংবা কারখানা কর্তৃপক্ষ কেউই কিছু জানায়নি।

এ বিষয়ে খানটেক্স ফ্যাশনস লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক (মানব সম্পদ ও প্রশাসন) সৈয়দ শামসুর রায়হান ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "ঈদ উপলক্ষ্যে বিআরটিসির পক্ষ থেকে ঈদে স্পেশাল বিআরটিসি বাস সার্ভিসের ব্যাপারে কেউ অবহিত করেননি। তাই কারখানার পক্ষ থেকে শ্রমিকদেরও বিষয়টি অবহিত করা যায়নি"।

গাজীপুর চান্দনা চৌরাস্তা এলাকার বটমস গ্যালারী প্রাইভেট লিমিটেডের প্রশাসনিক ব্যবস্থাপক (মানব সম্পদ ও প্রশাসন) শুক্কুর খান জানান, "শ্রমিকদের বহনে বিআরটিসি’র কোনো স্পেশাল সার্ভিসের বিষয়ে আমাদের জানানো হয়নি। শ্রমিকেরাও এ বিষয়টি অবগত নয়"।

এদিকে, শ্রমিকদের জন্য বিআরটিসি থেকে যে বাস বরাদ্দ দেয়া হয়েছে সে বিষয়ে জানেনই না অনেক শ্রমিক। এমনকি কারখানার কর্তৃপক্ষের কাছেও এ বিষয়ে কোনো তথ্য নেই বলে জানা গেছে।

গাজীপুর মহানগরের টঙ্গী এলাকার ইয়ার্ন রেইস গ্রুপের লিংকিং বিভাগের শ্রমিক রাসেল বলেন, সকাল ১০টায় তিনি চান্দনা চৌরাস্তায় এসেছেন। বেলা ১২টা পর্যন্ত অপেক্ষা করে কোনো বাসে চড়তে পারেননি। শ্রমিকদের বহনের জন্য বিআরটিসির কোনো বাস চান্দনা চৌরাস্তা, ভোগড়া বাইপাস ও বোর্ড বাজার এলাকায় দেখতে পাননি।

তবে এ সংক্রান্ত সকল কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে দাবি করেছেন বিআরটিসির কর্মকর্তারা। বিআরটিসির ইন্সট্রাক্টর তমিজ উদ্দিন ও শফিকুল ইসলাম জানান, ঈদে স্পেশাল বাস সার্ভিসের চালকদের জন্য প্রশিক্ষন দেয়া হয়েছে। তাদেরকে ভ্রমনে যাওয়া যাত্রীদের সাথে আচরণ ও রোড পরিচালনার শিক্ষা দেয়া হয়েছে। এ পর্যন্ত ত্রিশটি বাস শ্রমিকদের জন্য বুকিং দেয়া হয়েছে। কিন্তু বুকিং নেয়া শ্রমিক ও প্রশিক্ষিত চালকদের সাথে কথা বলতে তাদের সাথে সাক্ষাত করতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের এড়িয়ে যান। 

পরে বিআরটিসি উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) প্রকৌশলী ফাতেমা বেগমের সাথে সাক্ষাতের করতে চাইলে তিনি ব্যস্ত থাকায় এখন সাংবাদিকদের সাথে কলা বলতে পারবেন না বলে জানানো হয়।

52
50
blogger sharing button blogger
buffer sharing button buffer
diaspora sharing button diaspora
digg sharing button digg
douban sharing button douban
email sharing button email
evernote sharing button evernote
flipboard sharing button flipboard
pocket sharing button getpocket
github sharing button github
gmail sharing button gmail
googlebookmarks sharing button googlebookmarks
hackernews sharing button hackernews
instapaper sharing button instapaper
line sharing button line
linkedin sharing button linkedin
livejournal sharing button livejournal
mailru sharing button mailru
medium sharing button medium
meneame sharing button meneame
messenger sharing button messenger
odnoklassniki sharing button odnoklassniki
pinterest sharing button pinterest
print sharing button print
qzone sharing button qzone
reddit sharing button reddit
refind sharing button refind
renren sharing button renren
skype sharing button skype
snapchat sharing button snapchat
surfingbird sharing button surfingbird
telegram sharing button telegram
tumblr sharing button tumblr
twitter sharing button twitter
vk sharing button vk
wechat sharing button wechat
weibo sharing button weibo
whatsapp sharing button whatsapp
wordpress sharing button wordpress
xing sharing button xing
yahoomail sharing button yahoomail