• রবিবার, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৭ রাত

নিখোঁজ সেই রুয়েট শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার

  • প্রকাশিত ১০:৩৪ সকাল জুন ৮, ২০১৯
রিফাত
শাফি মাহমুদ রিফাত । ছবি: সংগৃহীত

অবশেষে শুক্রবার বিকেল সোয়া তিনটার দিকে নওগাঁ সরকারি ডিগ্রী কলেজের ডিগ্রীর মোড় খেয়া ঘাটের পাশ থেকে ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়। এ সময় নদীর দুই তীরে শত শত নারী-পুরুষ জমায়েত হয়।

নওগাঁয় নদীতে সাঁতার কাটতে গিয়ে নিখোঁজ শাফি মাহমুদ রিফাত (২১) নামে রাজশাহী প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) সেই শিক্ষার্থীর ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

৭ জুন, শুক্রবার বিকেল সোয়া তিনটার দিকে নওগাঁ সরকারি ডিগ্রী কলেজের ডিগ্রীর মোড় খেয়া ঘাট থেকে লাশ করা হয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার (৬ জুন) দুপুর ২টার দিকে নওগাঁ ছোট যমুনা নদীতে সাঁতার কাটতে গিয়ে নিখোঁজ হয়। তাকে উদ্ধার করতে নওগাঁ ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট এবং রাজশাহী থেকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবরি দল কাজ করে। রাত ৮টা পর্যন্ত কোনো সন্ধান না পেয়ে উদ্ধার কার্যক্রম স্থগিত করা হয়।

শুক্রবার সকাল থেকে পুনরায় উদ্ধার অভিযান শুরু হলেও বিকেল সোয়া তিনটার দিকে সন্ধান মেলে। রিফাত নওগাঁ শহরের কুমাইগাড়ী মহল্লার দেওয়ানপাড়ার সিরাজুল ইসলামের ছেলে ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঈদের ছুটিতে রিফাত হোসাইন বাড়িতে যায়। বৃহস্পতিবার সকালে ক্রিকেট খেলার পর রিফাত ও তার চাচাতো ভাই উল্লাস নওগাঁ সরকারি ডিগ্রী কলেজের ডিগ্রীর মোড় শিশু হাসপাতালের পিছনে দুপুর ১টার দিকে ছোট যমুনা নদীতে সাঁতার কাটছিল। এ সময় তারা নদীর দক্ষিণ পার্শ থেকে সাঁতার কেটে উত্তর পাড়ে যাচ্ছিল। সাঁতরিয়ে উল্লাস নদী পার হলেও পাড়ে পৌঁছার ৫/৭ ফুট দূরে দূর্বল হয়ে রিফাত পানিতে ডুবে যায়। এরপর বিষয়টি জানাজানি হলে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। স্থানীয় ১৫/২০ জন লোক পানিতে নেমে রিফাতকে খুঁজতে থাকে। এ ছাড়া স্থানীয়রা জাল টেনেও কোনো সন্ধান করতে পারেনি। পরে নওগাঁ ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিট গিয়ে সেখানে উদ্ধার অভিযান শুরু করে। বিকেল ৩টার দিকে রাজশাহী থেকে যাওয়া একটি ডুবরি উদ্বার অভিযানে যোগ দেয়।

তারপরও রিফাতের কোনো সন্ধান না পাওয়ায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে উদ্ধার কার্যক্রম স্থগিত করা হয়। পরে শুক্রবার সকাল থেকে আবারও উদ্ধার কার্যক্রম শুরু হয়। অবশেষে শুক্রবার বিকেল সোয়া তিনটার দিকে নওগাঁ সরকারি ডিগ্রী কলেজের ডিগ্রীর মোড় খেয়া ঘাটের পাশ থেকে ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়। এ সময় নদীর দুই তীরে শত শত নারী-পুরুষ জমায়েত হয়।

নওগাঁ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সিনিয়র ম্যানেজার সাবের আলী বলেন, “উদ্ধারে নওগাঁ স্টেশনের ৫ জন এবং রাজশাহী থেকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবরি দুইজনসহ পাঁচজন কাজ করছেন। যেখানে ডুবে গেছে সেখানে অনেক খোঁজাখুজি করে না পেয়ে অবস্থান পরিবর্তন করে এর আশপাশে খোঁজা হয়। অবশেষে শুক্রবার বিকেল তিনটার দিকে নওগাঁ সরকারি ডিগ্রী কলেজের ডিগ্রীর মোড় খেয়া ঘাটের পাশ থেকে ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়।”