• শনিবার, জানুয়ারী ১৮, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:৪০ সকাল

সোহেল তাজ: সৌরভের ফোন থেকে কল এসেছিল

  • প্রকাশিত ০৪:২৮ বিকেল জুন ১৯, ২০১৯
সোহেল তাজ
মঙ্গলবার সকালে ডিআরইউ মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে নিখোঁজ সৌরভের পরিবারের সাথে তান জিম আহমেদ সোহেল তাজ । ছবি: ফোকাস বাংলা।

'কিন্তু ফোন ধরার পর কেউ কথা বলেনি'

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ জানিয়েছেন তার নিখোঁজ ভাগনে সৈয়দ ইফতেখার আলম সৌরভের মুঠোফোন থেকে কল এসেছিল। বুধবার নিজের ভেরিফায়েড পেইজ থেকে ফেসবুক লাইভে এসে এই তথ্য জানান তিনি।

তিনি বলেন, "মঙ্গলবার রাত ২টা ২০ মিনিটে সৌরভের ফোন থেকে তার বাবা-মায়ের মোবাইলে ফোন আসে বলে। কিন্তু তারা ফোন ধরার পর কেউ কথা বলেনি"। 

ফেসবুক লাইভে সোহেল তাজ আরো বলেন, "আমরা সারারাত ঘুমাইনি। এখনও অপেক্ষা করছি, সৌরভের ফিরে আসার জন্য। গতকাল (মঙ্গলবার) রাতে আমরা এক জায়গায় গিয়েছিলাম। সেখানে আমরা কিছু তথ্য পেয়েছি। তাতে আমরা সন্তুষ্ট। গতকাল রাত আড়াইটার দিকে আমার মামাতো বোন আমাকে ফোন করেন। আমি মানিক (নিখোঁজ সৌরভের বাবা) ভাইয়ের সঙ্গেও কথা বলি। তারা আমাকে জানান, সৌরভের ফোন থেকে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে তাদের ফোনে কল এসেছে। দুই-তিনবার, কিন্তু কে অন্যদিকে ছিল, সেটা শোনা যায়নি। তারা অনেক চেষ্টা করেছেন, কিন্তু কোনও শব্দ শোনা যায়নি। পরবর্তী সময়ে তারা কয়েকবার সৌরভের ওই নম্বরে কল করেছেন, কিন্তু কেউ ফোন ধরেনি"।


ফেসবুক লাইভে সৌরভের বাবা ইদ্রিস আলী এবং মা ইয়াসমিন বেগম উপস্থিত ছিলেন। সোহেল তাজের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তারা বলেন, "‘‘২টা ২০ মিনিটে কল আসে। কল আসার সঙ্গে সঙ্গে কলটা ধরি। আমি বারবার হ্যালো হ্যালো বললাম। কিন্তু ওই প্রান্তে কেউ কথা বলে না। আমি পরে কল কেটে দিয়ে আবার ফোন দেই। তখন রিং হচ্ছিল, কিন্তু কেউ ধরেনি। এখনও কল করেছি, রিং হচ্ছে, কিন্তু কেউ ধরছে না। তার মানে সৌরভের ফোন খোলা রয়েছে। এরপর আমি আমার ছেলেকে একটা মেসেজ দিয়েছি। বাবা তুমি কোথায়? কী অবস্থায় আছো? তুমি বলো কোথায় আছো? দরকার হলে আমরা গিয়ে তোমাকে নিয়ে আসবো। এই মেসেজেরও কোনও উত্তর পাইনি আমি।  ডিসি কাউন্টার টেরোরিজম, ডিসি নর্থ এবং ওসি পাঁচলাইশকে জানিয়েছি। ফোন ট্র্যাক করে ফোন কোথায় আছে, সেটি জানার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন বলে তারা জানিয়েছেন।’’ 

সোহেল তাজ জানান তারা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপর আস্থা রেখে তাদের পদক্ষেপের জন্য অপেক্ষা করছেন। একই সাথে তাদের নিজেদের অনুসন্ধানও তারা চালিয়ে যাবেন বলে জানান তিনি।  

এর আগে চাকরির সংক্রান্ত কাজে বের হয়ে গত ৯ জুন চট্টগ্রাম থেকে নিখোঁজ হন। এরপর থেকেই নিখোঁজ রয়েছেন তিনি।