• শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:১৯ রাত

যানজট এড়াতে শহরে দূরপাল্লার বাস, দুর্ঘটনায় খুঁটি ভেঙে বিদ্যুৎ বিভ্রাট

  • প্রকাশিত ০৭:৩৮ রাত জুন ২১, ২০১৯
সিরাজগঞ্জ দুর্ঘটনা
শুক্রবার সিরাজগঞ্জ শহরে দূরপাল্লার বাসের ধাক্কায় ভেঙে যায় বৈদ্যুতিক খুঁটি ঢাকা ট্রিবিউন

এসব আঞ্চলিক সড়ক ভারী এবং দূরপাল্লার যান চলাচলের জন্য একদিকে যেমন অনুপযুক্ত, অন্যদিকে এসব সড়ক লাগোয়া গ্রামীণ জনপদের জনাকীর্ণ স্থান ও হাটবাজার থাকায় ঘটছে দুর্ঘটনা।

প্রায়ই নানা কারণে যানবাহনের ধীরগতি ও যানজট হচ্ছে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম পাড়ে সিরাজগঞ্জের বগুড়া-নগরবাড়ি ও ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কে। সেতুর দু’পাড়ের টোল প্লাজায় কখনও সার্ভার বিভ্রাট, মহাসড়কে আকস্মিক দুর্ঘটনায় যানবাহন বিকল কিংবা সড়ক ও জনপথ বিভাগের (সওজ) ক্ষতিগ্রস্ত নলকা সেতুর দু’পাড়ে যান চলাচলে ধীরগতির কারণে এ মহাসড়কে ঈদের সময় থেকেই যানবাহনের ধীরগতি এবং যানজট লেগে আছে। 

স্থানীয়রা জানান, রাজধানী ঢাকাসহ অন্যান্য রুট থেকে এ মহাসড়কে আসা উত্তরাঞ্চলগামী বাসের চালকরা বিড়ম্বনা এড়াতে প্রায়ই সিরাজগঞ্জ জেলা শহরসহ মুলিবাড়ি, কড্ডা, রহমতগঞ্জ কাঠেরপুল, রায়গঞ্জের ধানগড়া ও চান্দাইকোনার ব্যস্ততম, জনাকীর্ণ আঞ্চলিক সড়ক ব্যবহার করছে। 

এসব আঞ্চলিক সড়ক ভারী এবং দূরপাল্লার যান চলাচলের জন্য একদিকে যেমন অনুপযুক্ত, অন্যদিকে এসব সড়ক লাগোয়া গ্রামীণ জনপদের জনাকীর্ণ স্থান ও হাটবাজার থাকায় ঘটছে দুর্ঘটনা।

কিন্তু নির্বিকার দায়িত্বশীল সবাই। পৌর কর্তৃপক্ষ, ট্রাফিক পুলিশ, হাইওয়ে পুলিশ এবং সদর, রায়গঞ্জ ও সেতু থানা পুলিশের সামনেই এসব দূরপাল্লার যানবাহন বেপরোয়াভাবে আঞ্চলিক সড়ক ব্যবহার করায় প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে। 

শুক্রবার (২১ জুন) ভোরে জেলা শহরের প্রাণকেন্দ্রে মুক্তাপ্লাজার সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় দুর্ঘটনার শিকার হয় কুড়িগ্রাম থেকে নারায়ণগঞ্জগামী বাস ইউনাইটেড পরিবহন। এতে সড়কের পাশে থাকা বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমার সম্বলিত দু’টি খুঁটি ভেঙে যায়, মারাত্মক আহত হন এক পথচারী। ঘটনার পর ভোর থেকেই শহরের বেশ কিছু এলাকা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। প্রচণ্ড গরমে নাজেহাল হতে হয় শহরবাসীকে। 

বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিমপ্রান্তে মহাসড়কে যানবাহনের ধীরগতি। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

এদিকে, ঢাকা ও উত্তরাঞ্চলগামী যানবাহন জেলা শহর দিয়ে রহমতগঞ্জ কাঠেরপুল হয়ে ধানগড়া, চান্দাইকোনা ও রায়গঞ্জ পারাপারের সময় অবৈধভাবে পৌর টোলসহ বিভিন্ন ধরনের চাঁদা আদায় করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। স্থানীয়দের টোলের নামে এসব অবৈধ চাঁদা আদায়ের বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না প্রশাসন।

এ বিষয়ে সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আজিম উদ্দিন বলেন, ঈদের আগে বেশ কয়েকটি দুরপাল্লার পরিবহনকে সতর্ক করা হয়েছে। রায়গঞ্জের ধানগড়া ও চান্দাইকোনা, কাজিপুরের সোনামূখী এবং সদরের রহমতগঞ্জ কাঠেরপুলে আঞ্চলিক সড়ক দিয়ে চলাচলকারী দূরপাল্লার বাস থেকে অবৈধ পৌরটোলসহ বিভিন্ন ধরনের চাঁদা আদায় করা হচ্ছে বলেও চালকরা পুলিশকে জানিয়েছেন। 

“হাইওয়ে ও ট্রাফিক পুলিশের উচিৎ এসব দূরপাল্লার বাসের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিৎ”, বলেন সদর থানার সেকেন্ড অফিসার সাইফুল ইসলাম।

এ বিষয়ে জানতে ট্রাফিক পুলিশ রায়গঞ্জ উপজেলার চান্দাইকোনা শাখার সার্জেন্ট আসাদ উদ্দিনের মুঠোফোনে চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। 

তবে, রায়গঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফণী চন্দ্র সরকার বলেন, বর্তমানে আমার উপজেলা দিয়ে কোন দুরপাল্লার বাস যেতে দেওয়া হয় না। বগুড়ার ধুনট থেকে সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার সোনামূখী হয়ে ঢাকা ও উত্তরাঞ্চলগামী বাস চলাচল করছে বলে শুনেছি। 

তবে কাজিপুর থানার ওসি এস.এম.লুৎফর রহমান জানান, আমি ঢাকা এসেছি, বিষয়টি শিগগিরই দেখছি।  

এ বিষয়ে ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (প্রশাসন) হাবিব আহম্মেদ চৌধুরী বলেন, দিনের বেলায় ভিতর দিয়ে দুরপাল্লার বাস চলাচলে চালকদের সতর্ক করা হয়। তবে রাতের বেলায় মহাসড়কে যানজট হলেই পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে তারা বিকল্প পথ ব্যবহার করে। এটি নতুন কোনো বিষয় নয়। মহাসড়ক থেকে জেলার ভেতরে দূরপাল্লার কোনো বাস ঢুকে পড়লে সেটি দেখার দায়িত্ব মূলতঃ হাইওয়ে পুলিশের। 

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ওসি আব্দুল কাদের জিলানী বলেন, মহাসড়কে যানজট হলে দূরপাল্লার বাসগুলো জেলার ভেতর দিয়ে চলাচলের চেষ্টা করে। তবে, জেলা শহরের ভেতর দিয়ে দূরপাল্লার বাস চলাচলে কোনো বিধিনিষেধ নেই। 

বঙ্গবন্ধু পশ্চিম থানার ওসি সৈয়দ সহিদ আলম বলেন, মহাসড়ক থেকে জেলার ভেতরে দুরপাল্লার বাস অনুপ্রবেশে জেলা পুলিশের 

উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কড়াকড়ি নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। শুক্রবার ভোররাতে রায়গঞ্জ জেলার চান্দাইকোনায় যানজটের কারণে কুড়িগ্রাম থেকে নারায়ণগঞ্জগামী ইউনাইটেড নামের একটি বাস শহরের ভেতর দিয়ে যাওয়ার সময় দুর্ঘটনায় পড়ে।