• রবিবার, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:৪২ সকাল

হত্যার পর বাসের ছাদেই ফেলে রাখা হয় মালিকের লাশ

  • প্রকাশিত ০৬:২১ সন্ধ্যা জুন ২৫, ২০১৯
মৃত্যু
প্রতীকী ছবি

ওই পরিবহন ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ।

ভোলার চরফ্যাশনে ‘হাজী খেয়ালী পরিবহন’ নামে একটি বাসের ছাদ থেকে ওই বাসের মালিকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রীর বড় ভাই জিয়াউর রহমানকে আটক করা হয়েছে।

সোমবার (২৪ জুন) দিবাগত রাতে চরফ্যাশন উপজেলার নতুন বাসস্ট্যান্ডে থাকা বাসটি থেকে সোহাগ ভূঁইয়া নামে ওই পরিবহন ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মঙ্গলবার ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ।

নিহত সোহাগের বাড়ি উপজেলার আব্দুল্লাহপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডে।

লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে চরফ্যাশন থানার ওসি মো. সামছুল আরেফিন ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, সোমবার মধ্যরাতে অন্য একটি বাসের লোকজন বাসের ছাদে লাশ দেখে পুলিশকে জানালে পুলিশ গিয়ে সেটি উদ্ধার করে। এ ঘটনায় নিহত বাস মালিকের স্ত্রীর বড় ভাইকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করা হয়েছে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ওই বাসে চাকরি করতেন। গত কয়েকদিন আগে টাকা চুরির অপরাধে তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।