• শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:৫৪ দুপুর

টেকনাফ পৌরসভাকে পরিচ্ছন্ন রাখতে ইউএনডিপি’র উদ্যোগ

  • প্রকাশিত ০৮:১৩ রাত জুন ২৫, ২০১৯
টেকনাফ বালতি
টেকনাফ পৌরসভাকে পরিচ্ছন্ন রাখার উদ্দেশে পৌরবাসীর মাঝে বালতি বিতরণ করে ইউএনডিপি ঢাকা ট্রিবিউন

ইউএনডিপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, কক্সবাজার পৌরসভায় (শুধুমাত্র কক্সবাজার শহর) প্রতিদিন একজন নাগরিক ০.৪৫ কেজি বর্জ্য উৎপাদন করেন। এই সংকটে উখিয়া ও টেকনাফ উপজেলা সবচাইতে ঝুঁকিপূর্ণ উপজেলা।

কক্সবাজারের টেকনাফ পৌরসভাকে পরিচ্ছন্ন রাখতে ‘টেকসই বর্জ্য ব্যবস্থাপনা প্রকল্প’ নামে একটি কার্যক্রম হাতে নিয়েছে জাতিসংঘের উন্নয়ন সংস্থা (ইউএনডিপি)। রোহিঙ্গা পরিস্থিতি মোকাবেলায় চলমান এ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে স্থানীয় ১শ’ পরিবারের মধ্যে বালতি বিতরণ করেছে সংস্থাটি। 

মঙ্গলবার (২৫জুন) সকালে টেকনাফ পৌরসভা কার্যালয়ে বালতিগুলো পৌরবাসীর হাতে তুলে দেওয়া হয়। 

 ‘ইউএনডিপি’র রিপোর্টিং এন্ড কমিউনিকেশন অফিসার ফরহাদ হামিদ জানান, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ইস্যুতে টেকনাফ পৌরসভার নাগরিকদের মনোভাব পরিবর্তনের লক্ষ্যে ১০০টি পরিবারের বালতি বিতরণ করা হয়েছে। আবর্জনা সংগ্রহ পদ্ধতি, নির্দিষ্ট সময়ে সঠিক জায়গায় আবর্জনা ফেলা, পচনশীল ও অপচনশীল আবর্জনা পৃথকীকরণ, বিক্রয়যোগ্য প্লাস্টিক বর্জ্য সংগ্রহ পদ্ধতি নিয়ে সুইডিশ আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা (সিডা)-র অর্থায়নে ইউএনডিপি ‘টেকসই বর্জ্য ব্যবস্থাপনা প্রকল্প’ কার্যক্রমটি বাস্তবায়নে কাজ করছে। 

তিনি আরও জানান, ২০১৮ সালের জুনে ইউএনডিপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, কক্সবাজার পৌরসভায় (শুধুমাত্র কক্সবাজার শহর) প্রতিদিন একজন নাগরিক ০.৪৫ কেজি বর্জ্য উৎপাদন করেন। এই সংকটে উখিয়া ও টেকনাফ উপজেলা সবচাইতে ঝুঁকিপূর্ণ উপজেলা, যেখানে এখনো প্রতিমাসে ১০০০০ টন (২২০০০ ঘনমিটার) বর্জ্য উৎপাদিত হয়। কার্যকরী বর্জ্য ব্যবস্থাপনা না থাকায় বেশিরভাগ বর্জ্য উন্মুক্ত জায়গায়, রাস্তার পাশে, সেতুর নিচে ও পানি সরবরাহের জায়গায় ফেলা হয়। এ কারণে স্বাস্থ্য, পানি ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা গুরুতর ঝুঁকিতে পড়তে পারে। তাই সঠিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য টেকসই সমাধান খুবই প্রয়োজনীয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টেকনাফ পৌরসভার মেয়র হাজী মোহাম্মদ ইসলাম, পৌরসভার সচিব মুহাম্মদ মুহিউদ্দিন ফয়েজী, ইউএনডিপি কর্মকর্তা সৈয়দ মঞ্জুরুল হকসহ পৌরসভার ওয়ার্ড কাউন্সিলররা। 

অনুষ্ঠানে বক্তারা টেকনাফ শহরকে পরিচ্ছন্ন রাখার প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করে ইউএনডিপির এই কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান।