• মঙ্গলবার, মার্চ ৩১, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৫৯ সন্ধ্যা

প্রতিমন্ত্রী: ২০২২ সালের মধ্যে পুরান ঢাকার কেমিক্যাল কারখানা স্থানান্তর

  • প্রকাশিত ০৫:১৩ সন্ধ্যা জুন ২৬, ২০১৯
রাসায়নিক গুদাম
ওয়াহেদ ম্যানশনের বেজমেন্টে বিপুল পরিমাণ দাহ্য রাসায়নিক দ্রব্য। ছবি- রাজিব ধর/ঢাকা ট্রিবিউন

‘শিল্প মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদন থেকে আমরা জানতে পেরেছি, সিরাজদিখান উপজেলায় ৩১০ একর জমি বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। সেখানে ১ হাজার ৭০০ কোটি টাকা ব্যয়ে ২ হাজার ১৫৪টি প্লট বরাদ্দ দেওয়া হবে।’

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান বলেছেন, রাজধানীর পুরান ঢাকার সবগুলো কেমিক্যাল কারখানা ২০২২ সালের জুন মাস নাগাদ সরিয়ে নেওয়া হবে।

২৬ জুন, বুধবার সচিবালয়ে চুড়িহাট্টা ও এফআর টাওয়ারে সংঘটিত অগ্নিকাণ্ডের তদন্ত প্রতিবেদন নিয়ে আলোচনা সভা শেষে একথা বলেন তিনি। সভায় ২২টি মন্ত্রণালয় থেকে প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, “দেশের সব মানুষের দাবি ছিল এই কেমিক্যাল কারখানাগুলো ঢাকার আবাসিক এলাকা থেকে বাইরে কোথাও সরিয়ে নিতে হবে। আজকের সভায় আমাদের শিল্প মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদন থেকে আমরা জানতে পেরেছি, সিরাজদিখান উপজেলায় ৩১০ একর জমি বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। সেখানে ১ হাজার ৭০০ কোটি টাকা ব্যয়ে ২ হাজার ১৫৪টি প্লট বরাদ্দ দেওয়া হবে।”

এ সময় প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, “আমাদের সরকারের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ ছিল দুর্যোগ আসলে তৎপরতা বাড়ে। কিন্তু এ অপবাদ ঘোচাতে আমরা আজ আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা করেছি। এ সভায় বিগত সময়ে ঘটে যাওয়া দুর্যোগ বিষয়ে রিভিউ করেছি।”

তিনি বলেন, “ঢাকার চুড়িহাট্টায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় যে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছিল সেই প্রতিবেদন আমরা পেয়েছি। সেই প্রতিবেদনে স্বল্প মেয়াদী ৫টি সুপারিশ এবং দীর্ঘমেয়াদী ২৬টি সুপারিশ এসেছে। সেই সুপারিশগুলো নিয়ে আমরা আলোচনা করেছি।”