• বুধবার, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৮ রাত

এরশাদের অবস্থার অবনতি, দেয়া হচ্ছে অক্সিজেন

  • প্রকাশিত ০৭:৩৭ রাত জুন ৩০, ২০১৯
এরশাদ
ছবি : সংগৃহীত

রবিবার সকাল থেকে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে। রবিবার রাজধানীর বনানীতে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেন দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জিএম কাদের।

তিনি বলেন, "এরশাদের শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটেছে। এই মুহূর্তে তাকে অক্সিজেন সাপোর্টে রাখা হয়েছে।"

"শনিবার পর্যন্ত তার শারীরিক অবস্থার ৫০ শতাংশ উন্নতি হয়েছিল৷ কিন্তু সকাল থেকে তার শারীরিক অবস্থার অব তি হয়। ফুসফুসে পানি চলে এসেছে, দেখা দিয়েছে ইনফেকশন। পরে শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় তাকে অক্সিজেন দেয়া হয়", যোগ করেন তিনি। 

এসময় ওষুধ পরিবর্তন করে তার ইনফেকশন বন্ধের চিকিৎসা চলছে বলেও জানান কাদের।

এসময় সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, "সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, বিদেশে চিকিৎসার ব্যাপারে আমাদের সিদ্ধান্ত আছে তবে তা চিকিৎসকদের নির্দেশনার উপর নির্ভর করছে। এ মুহূর্তে সিএমএইচের চিকিৎসায় আমাদের আস্থা আছে। ভাইয়ের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হতে পারে বলে চিকিৎসকরা ধারণা করছেন"।

এসময় জাপার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আরো বলেন, "মিডিয়াতে প্রচার হয়েছে অর্থের অভাবে পার্টির চেয়ারম্যানের চিকিৎসা করা সম্ভব হচ্ছে না এটা সম্পূর্ণ ভুল। আমার যা কিছু আছে সর্বস্ব দিয়ে ভাইকে সুস্থ করার জন্য আমি প্রস্তুত। তা ছাড়া তিনি তো এখনো সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা। সাবেক রাষ্ট্রপতি সাবেক সেনাপ্রধান তার চিকিৎসার অর্থ রাষ্ট্রও দিবে।"

প্রসঙ্গত, এর আগে অর্থের অভাবে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের চিকিৎসা করা সম্ভব হচ্ছে না বলে জাতীয় সংসদে জানিয়েছিলেন জাপা মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা । তবে, পরে তিনি দাবি করেন সংসদে তার বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা মিডিয়াতে প্রচার করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, "আমার বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে মিডিয়াতে। আমি মূলত বিএনপি নেতা হারুনের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে বলেছিলাম, এরশাদকে দুর্নীতিবাজ প্রমাণ করার জন্য বিএনপি সরকারের লোকজন দেশে-বিদেশে গোয়েন্দা সংস্থাকে কাজে লাগিয়েছিলেন। কিন্তু কোনো দুর্নীতি খুঁজে পাননি। আল্লাহ বিচার দুনিয়াতে করে দেখায়। খালেদা জিয়া আজ দুর্নীতির দায়ে জেলে আছেন। অথচ এরশাদ দুর্নীতি না করায় তার চিকিৎসার জন্য তার নিজের কাছে কোন অর্থ আজ নেই।"

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, সৈয়দ সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, সুনীল শুভ রায় প্রমূখ।