• বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৪:০০ বিকেল

ঘুষ ঠেকাতে ‘ঘুষ বোর্ড’!

  • প্রকাশিত ০৭:৪৯ রাত জুলাই ২, ২০১৯
চট্টগ্রাম
নিজের অফিসে ‘ঘুষ বোর্ড’ লাগিয়েছেন চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুহুল আমিন (বাঁ থেকে তৃতীয়) । ছবি: সংগৃহীত

তার অফিসের ভেতরের দরজায় লেখা রয়েছে, ‘এই অফিসটা সত্যিকার অর্থেই দুর্নীতি মুক্ত, আপনার যদি সন্দেহ হয় তবে আপনি চেক করে দেখতে পারেন’।

দেয়ালে বিভিন্ন রকম নোটিস টানাতে বানানো হয় নোটিস বোর্ড। কিন্তু ঘুষ লেনদেনের খবর নোটিস বোর্ডে টানাতে দেখেছেন কেউ? সম্ভবত না। কিন্তু এবার এমনই এক বোর্ড বানিয়েছেন চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুহুল আমিন, যার নাম দিয়েছেন ‘ঘুষ বোর্ড’! 

সম্প্রতি হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহীর কার্যালয়ে জন্ম সনদ সংশোধন করতে আসা এক ব্যক্তির নিকট ১০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেন ওই অফিসেরই এক পিয়ন। ঘটনাটি বেশ আলোচিত হয়। তাই ঘুষের প্রবণতা ঠেকাতে ‘ঘুষ বোর্ড’ স্থাপন করেছেন রুহুল আমিন। ‘ঘুষ বোর্ড’ শিরোনামের ওই বোর্ডটির নিচে লেখা হয়েছে, ‘এই অফিসে যদি কাউকে ঘুষ দিয়ে থাকেন, তবে এই বোর্ডে বিবরণ লিখে যাবেন’।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চাকরির শুরুতেই রুহুল আমিন ঘুষ-দুর্নীতি বন্ধে কঠোর অবস্থান গ্রহণ করেছেন। তিনি চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সহকারী কমিশনার এবং সীতাকুণ্ডে সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে নকল ওষুধ ও ভেজালবিরোধী অভিযান পরিচালনা করে আলোচনায় আসেন। গত বছরের ২৩ সেপ্টম্বর হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী হবার পর তার অফিস থেকে দুর্নীতি উৎখাতের ঘোষণা দেন। তার অফিসের ভেতরের দরজায় লেখা রয়েছে, ‘এই অফিসটা সত্যিকার অর্থেই দুর্নীতি মুক্ত, আপনার যদি সন্দেহ হয় তবে আপনি চেক করে দেখতে পারেন’। দুর্নীতির বিরোধী অবস্থান নিয়েই এই কর্মকর্তা গত ২৯ জুন, শনিবার নিজ কার্যালয়ে ‘ঘুষ বোর্ড’ লাগিয়ে দেন। এরপর ১ জুলাই সোমবার, উপজেলা ভূমি অফিসের দেয়ালেও ‘ঘুষ বোর্ড’ লাগিয়েছেন তিনি।

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুহুল আমিন। ছবি: ফেসবুক থেকে

এ বিষয়ে রুহুল আমিন ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “আমার অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সামাজিক ও মনস্তাত্বিকভাবে চাপে রাখতে এ বোর্ড লাগানো হয়েছে। আমি চাই সেবাগ্রহীতারা যেন কোনো রকম হয়রানির শিকার না হয়েই তাদের সেবা পান।” 

বোর্ড লাগিয়ে ঘুষ বন্ধ করতে পারবেন কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে রুহুল আমিন বলেন, “প্রত্যেকটি প্রকল্পের সফলতা-ব্যর্থতা নির্ভর করে সেই প্রকল্পের সঙ্গে জগগণ কতটা সম্পৃক্ত তার ওপর। ঘুষ বন্ধে জনগণেরও দায়িত্ব আছে।” 

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালে ৩০তম বিসিএসে প্রশাসন ক্যাডারে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে যোগদান করেন রুহুল আমিন। তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের সাবেক ছাত্র (৩৩তম ব্যাচ)। তার গ্রামের বাড়ি মাদারীপুরে।