• শুক্রবার, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৪২ সন্ধ্যা

গরু ব্যবসায়ীকে হত্যার পর লাশ ঝুঁলিয়ে রেখেছিল দৃর্বুত্তরা

  • প্রকাশিত ১১:১৪ সকাল জুলাই ৪, ২০১৯
লাশ
প্রতীকী ছবি

‘যেখানে হোসেন আলীকে হত্যা করা হয়েছে তার পাশেই একটি ব্যাগে আম, ছাতা, ও পায়ের জুতা পড়ে ছিল।’

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে হোসেন আলী (৫৫) নামের এক গরু ব্যবসায়ীকে হত্যা করে গাছের সাথে ঝুলিয়ে রেখেছে দুর্বৃত্তরা। 

৪ জুলাই,বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে কালীগঞ্জের বাবরা মাঠের একটি বাগানের আমগাছ থেকে হোসেন আলীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। পুলিশের ধারণা তাকে হত্যার পর পা-বেঁধে গাছের সাথে ঝুলিয়ে রাখে দৃর্বুত্তরা।

নিহত হোসেন আলী কালীগঞ্জ পৌরসভার বাবরা গ্রামের মৃত আরশেদ আলীর ছেলে। 

নিহত হোসেন আলীর দুলাভাই ভিকু আলী জানান, বুধবার বিকালে গান্না (এলাকার নাম) যাবার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর থেকে সে নিখোঁজ ছিল। সকালে মাঠে যাবার পথে কৃষকরা হোসেন আলীর লাশ গাছে ঝুলতে দেখে পরিবারের সদস্যদের খবর দেয়। 

তিনি বলেন, “হোসেন আলী পেশায় গরু ব্যবসায়ী। সে গান্না বাজার থেকে ৬০ হাজার টাকা বাড়িতে আনার কথা বলে বের হয়েছিল। তাদের ধারণা টাকা ছিনতাই করে তাকে হত্যা করা হয়েছে। যেখানে হোসেন আলীকে হত্যা করা হয়েছে তার পাশেই একটি ব্যাগে আম, ছাতা, ও পায়ের জুতা পড়ে ছিল।”

কালীগঞ্জ থানার অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) ইউনুচ আলী বলেন, “আম গাছ থেকে আমরা লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ মর্গে পাঠানো হয়।”

তিনি বলেন, “হোসেন আলীকে হত্যা করে তার লাশ ঝুঁলিয়ে রেখেছিল দৃর্বুত্তরা। তার পা বাঁধা ও মুখের মধ্যে রুমাল ঢোকানো রয়েছে। কী কারণে হত্যা করা হয়েছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।”