• বুধবার, নভেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৪:৪৩ বিকেল

মাদারীপুরে তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ, ধামাচাপা দেওয়ার অভিযোগ

  • প্রকাশিত ০৩:৩৫ বিকেল জুলাই ৫, ২০১৯
ধর্ষণ
প্রতীকী ছবি

সোমবার (১ জুলাই) ঘটনা ঘটলেও বিষয়টি সালিশের নামে সময়ক্ষেপণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ শিশুটির বাবার

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার পূর্ব সরমঙ্গল এলাকায় তৃতীয় শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে একই এলাকার নুর হোসেন নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) নির্যাতনের শিকার ছাত্রীকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে অভিযুক্ত নুর হোসেন।

স্থানীয় ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, রাজৈর থানার পূর্ব সরমঙ্গল গ্রামের রাজ্জাক মৃধার ছেলে নুর হোসেন (৫৫) একটি ভ্যান গ্যারেজের ভিতরে নিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণ করে। এসময় গামছা দিয়ে শিশুটির মুখ বেঁধে রাখে। পরে স্থানীয় এক নারী শিশুটিকে দেখে ফেললে বিষয়টি জানাজানি হয়ে যায়।

এদিকে গত সোমবার (১ জুলাই) ঘটনা ঘটলেও বিষয়টি সালিশের নামে সময়ক্ষেপণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ শিশুটির বাবার। তিনি বলেন, “ধর্ষক নুরের নাতির চেয়েও বয়সে আমার মেয়ে অনেক ছোট। এত ছোট মেয়েকে সে ধর্ষণ করেছে। পরে দেলোয়ার শেখ শালিস করে দিবে বলে আমার হাসপাতালে আসতে দেয়নি। পুলিশকে জানাতেও নিষেধ করেছে। আমি এর কঠোর বিচার চাই।”

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের আরএমও ডা. শশাংক চন্দ্র ঘোষ বলেন, শিশুটিকে ধর্ষণের অভিযোগে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতালের গাইনি ডাক্তার দিয়ে ধর্ষণের আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। আলামত পরীক্ষা করার জন্য পাঠানো হয়েছে।

মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার উত্তম প্রসাদ পাঠক বলেন, শিশুটির পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।