• মঙ্গলবার, আগস্ট ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:২১ দুপুর

আমরা চাই রোহিঙ্গারা ফেরত যাক, শেখ হাসিনাকে চীনা প্রেসিডেন্ট

  • প্রকাশিত ১০:৫২ রাত জুলাই ৫, ২০১৯
চীন
শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ফোকাস বাংলা

বৈঠকে চীনা প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমরা এ সংকট সমাধানে যতটা সম্ভব চেষ্টা করব। বাংলাদেশ ও মিয়ানমার দু’দেশেই আমাদের ঘনিষ্ট বন্ধু। আমাদের কাছে দু’দেশই সমান, কেউ কম বা বেশি নয়।’

দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে একমত পোষণ করেছে ঢাকা ও বেইজিং।

৫ জুলাই, শুক্রবার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের মধ্যে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এই মতৈক্য হয়।

শুক্রবার সন্ধ্যায় চীনের দিয়াওউয়াতি রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবনে বৈঠক শেষে পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

মো. শহীদুল হক বলেন, “দুই নেতা প্রথমে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধানে সম্মত হয়ে বলেন, এটি অমীমাংসিত রাখা যাবে না।”

পররাষ্ট্র সচিব জানান, চীনের প্রেসিডেন্ট এবং বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, “এ ব্যাপারে চুক্তি স্বাক্ষরের পর দু’বছর পেরিয়ে গেছে।”

পররাষ্ট্র সচিব দুই নেতাকে উদ্ধৃত করে আরো বলেন, “কিভাবে এই সমস্যার সমাধান হবে এ ব্যাপারে আমাদের মধ্যে কোনো দ্বিমত নেই। রোহিঙ্গারা অবশ্যই তাদের নিজ দেশে ফিরে যাবে।”

শহীদুল হক বলেন, “উভয় নেতা উল্লেখ করেন যে, এ ব্যাপারে দু’দেশের প্রতিনিধিরা এক সঙ্গে কাজ করবে এবং রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে তারা মিয়ানমারের ওপর ‘গুড উইল’ কাজে লাগাবে।”

বৈঠকে চীনা প্রেসিডেন্ট বলেন, “আমরা এ সংকট সমাধানে যতটা সম্ভব চেষ্টা করব। বাংলাদেশ ও মিয়ানমার দু’দেশেই আমাদের ঘনিষ্ট বন্ধু। আমাদের কাছে দু’দেশই সমান, কেউ কম বা বেশি নয়।”

পররাষ্ট্র সচিব চীনের প্রেসিডেন্টকে উদ্ধৃত করে বলেন, “আমরা চাই রোহিঙ্গারা ফেরত যাক।”

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পাঁচ দিনের সরকারি সফরে সোমবার (১ জুলাই) চীনের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়ে যান। চীন সফর শেষে তিনি বেইজিং ক্যাপিটাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে স্থানীয় সময় ৬ জুলাই বেলা ১১টায় ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেবেন।