• শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:৪১ দুপুর

ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদও করলো, মারও খেলো (ভিডিও)

  • প্রকাশিত ০৩:১৩ বিকেল জুলাই ৯, ২০১৯
া

আকাশ বলে, ‘স্কুলছাত্রীকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় আমাকে নির্দয়ভাবে পিটিয়েছে।'

পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলায় এক স্কুলছাত্রীকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় রফিকুল ইসলাম আকাশ (১৭) নামের এক যুবককে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে। 

সোমবার (৯ জুলাই) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শহরের বাবুপাড়া এলাকার চিলড্রেন কিন্ডারগার্টেন স্কু্লের সামনে এঘটনা ঘটে। 

আহত আকাশ একই এলাকার আশরাফ আলীর ছেলে। সে সরকারি সাঁড়া মাড়োয়ারী মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এবছর এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। ইভটিজিংয়ের শিকার ওই স্কুলছাত্রী এবং আহত আকাশ আত্মীয় বলে জানা গেছে।

এদিকে আকাশকে মারধরের ঘটনার একটি ভিডিওটি ধারণ করে স্থানীয়রা। ভিডিওতে দেখা যায়, দাঁড়িয়ে থাকা আকাশকে মারধর করছে এক যুবক। তখন স্থানীয় এক ব্যক্তি প্রতিরোধের চেষ্টা করলে তাকেও মারধর করা হয়। পরে আকাশকে সড়কের ওপর ফেলে দিয়ে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি-লাথি মারতেই থাকেন ওই যুবক।

জানা যায়, সরকারি সাঁড়া মাড়োয়ারী মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীকে স্কুলে যাওয়া-আসার পথে কয়েকদিন ধরে আপন শেখ (১৮) নামের এক যুবক উত্ত্যক্ত করে আসছিল। আপন পৌর মহল্লার পিয়ারাখালী এলাকার মৃত সিরাজুল রহমানের ছেলে। 

গত কয়েকদিন স্কুলছাত্রীকে উত্ত্যক্তের বিষয়টি আকাশের নজরে আসে। ঘটনার দিন স্কুল যাচ্ছিল ওই ছাত্রী। এসময় আপন তার পিছু নেয়। এতে আপনকে বাধা দেয় আকাশ। এর জের ধরে আপন ক্ষিপ্ত হয়ে আকাশকে পিটিয়ে জখম করে। আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নেওয়া হয়। 

এবিষয়ে রফিকুল ইসলাম আকাশ বলে, ‘স্কুলছাত্রীকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় আমাকে নির্দয়ভাবে পিটিয়েছে। হামলাকারী যুবক স্থানীয় বখাটে হিসেবে চিহ্নিত’।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দীন ফারুকী বলেন, ‘এ ঘটনাটির তদন্ত চলছে।'