• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:৪৪ দুপুর

রিফাত হত্যা: স্ত্রী মিন্নির সাক্ষ্য গ্রহণ

  • প্রকাশিত ১২:৫৬ দুপুর জুলাই ১৬, ২০১৯
আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি
আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি। ঢাকা ট্রিবিউন

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে বাবার বাড়ি থেকে জিজ্ঞাবাবাদের জন্য পুলিশ লাইনে নেওয়া হয় মিন্নিকে

বরগুনায় প্রকাশ্য দিবালোকে শাহনেওয়াজ রিফাত (রিফাত শরীফ) হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে জিজ্ঞাবাসাবাদের জন্য পুলিশ লাইনে নেওয়া হয়েছে। 

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সকাল সাড়ে নয়টার দিকে মিন্নির বাবার বাড়ি থেকে জিজ্ঞাবাবাদের জন্য পুলিশ লাইনে নেওয়া হয়েছে। 

মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর বলেন, “সকালে পুলিশের একটি টিম মিন্নিকে আসামি সনাক্ত করার কথা বলে পুলিশ লাইনে নিয়ে যায়।”

এদিকে রিফাত হত্যার ঘটনায় স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি জড়িত দাবি করে গত ১৪ জুলাই বরগুনায় সর্বস্তরের জনগণের ব্যানারে একটি মানববন্ধন করা হয়েছে।

মানববন্ধনের পরপরই বাবার বাড়িতে এক সংবাদ সম্মেলনে মিন্নি দাবি করেন, মামলায় অভিযুক্ত আসামিদের আড়াল করতেই তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। এসময় তিনি অপপ্রচারকারীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন।

উল্লেখ্য, গত ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে রিফাত শরীফকে সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বিকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

এঘটনায় রিফাতের বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে ১২ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা সাতজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন।

রিফাত হত্যা মামলায় এ পর্যন্ত ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ২ জুলাই ভোররাতে মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন। এখন পর্যন্ত এজাহারভুক্ত তিনজনসহ সাত আসামি হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। এঘটনায় বর্তমানে ছয়জনকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।