• রবিবার, অক্টোবর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০০ রাত

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গাসহ নিহত ২

  • প্রকাশিত ১০:২৭ সকাল জুলাই ২৪, ২০১৯
বন্দুকযুদ্ধ
প্রতীকী ছবি

টেকনাফ উপজেলার লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পাশে এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে

কক্সবাজারের টেকনাফে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি’র) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গাসহ দুই যুবক নিহত হয়েছে। এসময় ১ লাখ পিস ইয়াবা ও ২টি দেশীয় বন্দুক ও তিন রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে। 

বুধবার (২৪ জুলাই) ভোররাত ৪ টার দিকে টেকনাফ উপজেলার লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পাশে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় বিজিবি’র তিন সদস্য আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে বিজিবি।

নিহতরা হলো- উখিয়া বালুখালী ১১ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ই-ব্লকের মোহাম্মদ ইসলামের ছেলে মোহাম্মদ কামাল (২২) ও টেকনাফ হোয়াইক্যং নয়াপাড়ার মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান (২৩)। আহত বিজিবি সদস্যরা হলেন- মফিজুর রহমান, উজ্জল হোসেন ও ইমরান হোসেন।

টেকনাফ ২নং বিজিবি’র অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, “গোপন সংবাদের ভিত্তিতে টেকনাফ ২নং বিজিবি ক্যাম্পের একটি টহলদল অভিযানে নামে। এসময় টেকনাফ লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পাশে একটি খাল পার হয়ে কয়েকজন ইয়াবা পাচারকারী ক্যাম্পে ঢোকার চেষ্টা করলে বিজিবি’র সঙ্গে ইয়াবাপাচারকারীদের গোলাগুলি হয়। এক পর্যায়ে পাচারকারিরা পিছু হটে পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল থেকে এক লাখ পিস ইয়াবা, দুটি দেশীয় বন্দুক ও তিন রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার করা হয়। গোলাগুলিতে আহত দুজনকে উদ্ধার করে টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় বিজিবি। জরুরি বিভাগের চিকিৎসকরা উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠান। আহতরা সেখানে মারা যান। মরদেহ দুটি সদর হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।” 

এঘটনায় টেকনাফ থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।

টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের মোহাম্মদ জাকারিয়া বলেন, “বিজিবি সদস্যরা গুলিবিদ্ধ দুজনকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। তাদের শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুলির চিহ্ন ছিল। আহত বিজিবি সদস্যদেরকেও চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।”