• রবিবার, অক্টোবর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০০ রাত

১০ বছর ধরে প্রধানমন্ত্রীর নামে কোরবানি দিচ্ছেন মুক্তিযোদ্ধা জাবেদ আলী

  • প্রকাশিত ০৫:৩৮ সন্ধ্যা আগস্ট ১০, ২০১৯
মুক্তিযোদ্ধা জাবেদ আলী
বিগত ১০ বছরের ন্যায় এবারও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে কোরবানি দেওয়ার জন্য ৬৩ হাজার টাকা দিয়ে গরু কিনেছেন মুক্তিযোদ্ধা জাবেদ আলী। ঢাকা ট্রিবিউন

২০০৭ সালে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী গ্রেফতার হওয়ার পর টাঙ্গাইলের মুক্তিযোদ্ধা জাবেদ আলী সৃষ্টিকর্তার কাছে মোনাজাত করেন যে, আওয়ামী লীগ সভাপতি মুক্ত হয়ে দেশের শাসনভার নিতে পারলে তার নামে প্রতি ঈদে কোরবানি দেবেন

২০০৭ সালে সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্রেফতার হন। তিনি গ্রেফতার হওয়ার পর টাঙ্গাইলের মুক্তিযোদ্ধা জাবেদ আলী তার মুক্তির জন্য আল্লাহর কাছে মোনাজাত করেন যে, আওয়ামী লীগ সভাপতি মুক্ত হয়ে দেশের শাসনভার নিতে পারলে তার নামে প্রতি ঈদে কোরবানি দেবেন।

এরপর কারামুক্ত হয়ে নির্বাচনে জিতে ২০০৯ সালে দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন শেখ হাসিনা। সেই থেকে সৃষ্টিকর্তার কাছে নিজের করা ওয়াদা রাখতে বিগত ১০ বছর ধরে প্রতি কোরবানির ঈদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে কোরবানি দিয়ে আসছেন মুক্তিযোদ্ধা জাবেদ আলী। এ বছরও প্রধানমন্ত্রীর নামে কোরবানি দেয়ার জন্য একটি গরু কিনেছেন।

জাবেদ আলী বলেন, "এবছরও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে গরু কোরবানি দিচ্ছি। এবার গরুর দাম পড়েছে ৬৩ হাজার টাকা।"

জানা যায়, মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই ইউনিয়নের গোড়াই খামারপাড়া গ্রামের বাসিন্দা জাবেদ আলী ১৯৬২ সালে সাবেক মন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকীর অনুপ্রেরণায় মুজিব আদর্শে দীক্ষিত হন। ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুর ডাকে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন। '৭৫ এর ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর অনেক লোভ লালসার মধ্যেও তিনি মুজিব আদর্শে অটল থাকেন। এজন্য তাকে অনেক নির্যাতনও সইতে হয়।

এ ব্যাপারে মির্জাপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার অধ্যাপক দুর্লভ বিশ্বাস বলেন, "মুক্তিযোদ্ধা জাবেদ আলী একজন সত্যিকারের মুজিব সৈনিক। তিনি স্পষ্টবাদী ও  সব সময় ন্যায়ের পক্ষে অবস্থান নেন।"