• সোমবার, অক্টোবর ১৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৫:৫৩ সন্ধ্যা

মাদ্রাসা অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

  • প্রকাশিত ০৯:৪৫ রাত আগস্ট ১৮, ২০১৯
ধর্ষণ
প্রতীকী ছবি

পুলিশ জানায়, দীর্ঘদিন ধরেই ওই ছাত্রীকে নিজের বাসায় ধর্ষণ এবং যৌন নির্যাতন করে আসছিলেন তেরআনা শাহ মাহমুদিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ কামাল হোসাইন

ঝালকাঠিতে মাদ্রাসার এক অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে নিজ প্রতিষ্ঠানের ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন নির্যাতন ও ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় রবিবার অভিযুক্তের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ভুক্তভোগীর বাবা একটি মামলা দায়ের করেছেন বলে ঝালকাঠি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শোনিত কুমার গায়েন নিশ্চিত করেছেন।

অভিযুক্ত অধ্যক্ষ এসএম কামাল হোসাইন ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছেন। ভুক্তভোগী ছাত্রী বিগত ৫ বছর ধরে লেখাপড়ার পাশাপাশি অধ্যক্ষের বাসায় গৃহপরিচারিকার কাজ করতো।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরেই ওই ছাত্রীকে নিজের বাসায় ধর্ষণ এবং যৌন নির্যাতন করে আসছিলেন তেরআনা শাহ মাহমুদিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ কামাল হোসাইন। গত বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) দুপুরে ওই ছাত্রী অধ্যক্ষের বাসায় সর্বশেষ ধর্ষণের শিকার হয়। তবে, এদিন এই ঘটনা অধ্যক্ষের স্ত্রী দেখে ফেলেন। পরে পালিয়ে যান অভিযুক্ত কামাল হোসাইন। এরপর ওই ছাত্রীকে অধ্যক্ষের ভাইয়ের বাড়িতে আটকে রাখা হয়। খবর পেয়ে গত শনিবার (১৭ আগস্ট) ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে আসে পুলিশ।

এ প্রসঙ্গে ওসি শোনিত কুমার গায়েন ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "এ ঘটনায় রবিবার দুপুরে সদর থানায় মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে অধ্যক্ষ কামাল হোসেনকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত অধ্যক্ষ পালিয়ে গেলেও তাকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে। নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।"