• বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৪:০০ বিকেল

স্বামীর লাশ দেখে স্ত্রীর মৃত্যু

  • প্রকাশিত ১০:৪১ সকাল আগস্ট ১৯, ২০১৯
টাঙ্গাইল

আকস্মিক দুই মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে স্বামীর মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (১৭ আগস্ট) রাতে উপজেলার ভাড়রা গ্রামে এঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন নাগরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলম চাঁদ।

নিহত নারীর নাম হালিমা বেগম (৫৬)। জানা যায়, কিছুদিন আগে সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন হালিমা বেগমের ছেলে। পরে শনিবার সন্ধ্যায় তার স্বামী আজমত মিয়া (৭০) বার্ধক্যজনিত রোগে মৃত্যুবরণ করেন। এসময় ছেলেকে নিয়ে হাসপাতাল থেকে ফিরছিলেন হালিমা বেগম। পথিমধ্যে স্বামীর মৃত্যু সংবাদ পান তিনি। পরে বাসায় এসে স্বামীর লাশ দেখা মাত্রই হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তার মৃত্যু হয়।

আকস্মিক দুই মৃত্যুতে হালিমার পরিবারের স্বজন এবং স্থানীয়দের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। স্থানীয় সমাজ সেবক নজরুল ইসলাম বলেন, "আজমত মিয়া এলাকার অত্যন্ত নিরীহ একজন ব্যক্তি ছিল। একইদিনে এক ঘণ্টার ব্যবধানে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু অত্যন্ত দুঃখজনক ঘটনা।" 

নিহত হালিমার ভাই আব্দুর রহিম মাষ্টার বলেন, শনিবার রাতেই সামাজিক কবরস্থানে স্বামী-স্ত্রীর লাশ দাফন করা হয়েছে। 

নাগরপুর থানার ওসি আলম চাঁদ বলেন, "স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যুর খবর শুনে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। নিহতের ছেলে সুমনের ওপর হামলা ঘটনায় অভিযোগ পেলে দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।"