• বুধবার, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪০ রাত

বিয়ের প্রলোভনে গার্মেন্টসকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগে চিকিৎসক গ্রেফতার

  • প্রকাশিত ০৯:০৬ রাত আগস্ট ১৯, ২০১৯
গণধর্ষণ
প্রতীকী ছবি।

সোমবার (১৯ আগস্ট) বিকেলে ফতুল্লার পঞ্চবটি এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সে ফতুল্লার পঞ্চবটিস্থ মামুন মার্কেটে একটি ডেন্টাল ক্লিনিকের চিকিৎসক

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় গার্মেন্টসকর্মীকে (১৭) ধর্ষণের অভিযোগে রফিকুল ইসলাম অপু (৪০) নামে এক দন্ত্য চিকিৎসককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৯ আগস্ট) বিকেলে ফতুল্লার পঞ্চবটি এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সে ফতুল্লার পঞ্চবটিস্থ মামুন মার্কেটে একটি ডেন্টাল ক্লিনিকের চিকিৎসক। ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

সোমবার দুপুরে ধর্ষণের শিকার গার্মেন্টসকর্মীর মা বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় রফিকুল ইসলাম অপুকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। অভিযুক্ত চিকিৎসক ফতুল্লার কুতুবপুর ইউনিয়নের লামাপাড়া এলাকার আব্দুল করিমের ছেলে।

মামলাসূত্রে জানা যায়, ফতুল্লার পঞ্চবটি রোশন হাউজিং এলাকায় পরিবারের সাথে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছিলেন ধর্ষণের শিকার গার্মেন্টসকর্মী। মায়ের দাঁতের সমস্যা নিয়ে পঞ্চবটিস্থ মামুন মার্কেটে একটি ডেন্টাল ক্লিনিকে চিকিৎসার জন্য যাওয়া আসা ছিলো তার।

একপর্যায়ে অভিযুক্ত রফিকুল ইসলাম অপু ভুক্তভোগীর মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে এবং অপু বিয়ে করার জন্য তার মায়ের কাছে প্রস্তাব দেয়। সেই সুবাদে অপুর সাথে গামের্ন্টসকর্মীর পরিবারেরও সু-সম্পর্ক গড়ে উঠে। এরপর ১৭ আগস্ট দুপুরে গার্মেন্টকর্মীকে ফোনে অপু তার চেম্বারে ডেকে এনে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, এঘটনায় ভুক্তভোগীর মা বাদী হয়ে মামলা করেছে। তদন্ত চলছে। ইতোমধ্যেই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং ওই গার্মেন্টকর্মীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।