• রবিবার, নভেম্বর ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৮ রাত

গোপালগঞ্জে ধর্ষণচেষ্টা করায় দুই যুবককে জুতাপেটা

  • প্রকাশিত ০৪:৫০ বিকেল আগস্ট ২৮, ২০১৯
গোপালগঞ্জ
গোপালগঞ্জের মানচিত্র

এসময় সালিশে উপস্থিত বলেন, ‘এলাকার শান্তির জন্য হামিদ ও হালিমকে জুতাপেটা করা হয়েছে। তবে ওই দুই যুবকের অভিভাবকরাই তাদের জুতাপেটা করেছে’

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার শাস্তি হিসেবে দুই যুবককে জুতাপেটা করা হয়েছে। 

মঙ্গলবার (২৭ আগস্ট)  সন্ধ্যায় উপজেলায় ধর্ষণ চেষ্টার সালিশ বৈঠকে হামিদ শেখ (১৯) ও হালিম শিকদার (১৮) নামে দুই যুবককে জুতাপেটা করা হয়। 

এলাকাবাসী জানায়, গত সোমবার সন্ধ্যায় প্রাইভেট পড়ে বাড়ি ফেরার সময় হামিদ শেখ ও হালিম শিকদার নামের দুই যুবক ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থী ধর্ষণের চেষ্টা করে। এসময় ওই ছাত্রীর চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসলে হামিদ ও হালিম পালিয়ে যায়। পরে ওই গ্রামে সালিশে অভিযুক্ত দুইজনকে জুতাপেটা করা হয়। 

সালিশে উপস্থিত এক ডাক্তার বলেন, “এলাকার শান্তির জন্য হামিদ ও হালিমকে জুতাপেটা করা হয়েছে। তবে ওই দুই যুবকের অভিভাবকরাই তাদের জুতাপেটা করেছে।” 

ভুক্তভোগীর বাবা বলেন, “এলাকার মুরব্বিদের অনুরোধে সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে বিষয়টি মীমাংসা হয়েছে। এছাড়া সাদা কাগজে একটি মীমাংসাপত্র লেখা হয়েছে।” 

কোটালীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা-ওসি (তদন্ত) মো: জাকারিয়া বলেন, “এটি অপরাধ। এধরনের অপরাধ সালিশের মাধ্যমে মীমাংসার আইনগত কোনো বিধান নেই। অভিযুক্তর পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দায়ের করলেই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।”