• বুধবার, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৮ রাত

জয়পুরহাটে আওয়ামীলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১

  • প্রকাশিত ১১:৫৪ সকাল আগস্ট ৩১, ২০১৯
গণপিটুনি
প্রতীকী ছবি।

শুক্রবার (৩০ আগস্ট) রাতে কুশুমসারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে বেড়া দেওয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে

জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার কুশুমসারা গ্রামে আওয়ামীলীগের বিবদমান দু’গ্রুপের সংঘর্ষে একজন নিহত ও অন্তত ৯জন আহত হয়েছে। 

শুক্রবার (৩০ আগস্ট) রাতে কুশুমসারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে বেড়া দেওয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নিহত ওই গ্রামের সামছুলকে (৫৯) গুরুতর আহত অবস্থায় রাতে তাকে জয়পুরহাট হাসপাতাল থেকে বগুড়ার শজিমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়। শনিবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। 

আহতদের মধ্যে তছির উদ্দিনের ছেলে আব্দুর রশিদ (৫০), করিম হোসেনের ছেলে নাছির হোসেন (৩০) ও আব্দুর রশিদের ছেলে রসুল হোসেনকে (২৪) রাতেই জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অন্যরা কালাই উপজেলা হাসপাতাল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। আহতরা সকলেই কুশুমসারা গ্রামের বাসিন্দা। 

কালাই থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল মালেক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কালাই উপজেলা চেয়ারম্যান মিনফুজুর রহমান মিলনের সমর্থকরা বিদ্যালয় মাঠ ঘেরার জন্য বেড়া দিতে যায়। জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও স্থানীয় মাত্রায় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান লজিক তালুকদারের সমর্থকরা বাধা দেয়। এতে উভয়পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। 

নিহতদের পক্ষ থেকে এঘটনায় মামলা করার কথা জানানো হলেও এপ্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত থানায় কোনও অভিযোগ আসেনি বলে জানায় পুলিশ। বর্তমানে ওই এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।