• সোমবার, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:০০ রাত

ডেঙ্গু থেকে বাঁচতে টয়লেটে মশারি টানিয়েছেন এই ব্যক্তি!

  • প্রকাশিত ০২:১২ দুপুর সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯
সাতক্ষীরা
ডেঙ্গুর ভয়ে টয়লেটে মশারি টানিয়েছেন সুমন হোসেন। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

ডেঙ্গুর ভয়েই বাড়ির টয়লেটে তিনি মশারি টানিয়েছেন

ডেঙ্গু থেকে বাঁচতে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে টয়লেটে মশারি টানিয়েছেন এক ব্যক্তি। এ রকম একটি ছবি সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করা হলে তা ভাইরাল হয়েছে, সৃষ্টি হয়েছে হাস্যরসের।

টয়লেটে মশারি টানানো ওই ব্যক্তি হচ্ছেন কালীগঞ্জ উপজেলার নলতা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ঘোড়াপোতা গ্রামের মৃত আরশাদ আলীর ছেলে সুমন হোসেন।

সুমন হোসেন জানান, ডেঙ্গুর ভয়েই বাড়ির টয়লেটে তিনি মশারি টানিয়েছেন। এই ছবি দেখে এলাকার অন্য বাসিন্দারাও উৎসাহিত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

একই ওয়ার্ডের বাসিন্দা তরিকুল ইসলাম জানান, গ্রামাঞ্চলে মশার প্রকোপ শহরের থেকে অনেক বেশি। চারপাশে বাগান থাকে। মশার উপদ্রব থেকে রক্ষা পেতে সুমন তার টয়লেটে মশারি ঝুলিয়ে দিয়েছেন। এটা দেখে এলাকার অন্য মানুষও উৎসাহিত হয়েছেন ও সচেতন হচ্ছে।

নলতা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান বলেন, প্রতিটি ওয়ার্ডে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ইউপি সদস্য ও গ্রাম পুলিশরা সচেতনতা ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান করছে। বিদ্যালয়গুলোতে জনসচেতনতামূলক প্রচারাভিযান অব্যাহত রয়েছে। আমার ইউনিয়নে এখনও ডেঙ্গুরোগী শনাক্ত হয়নি। তবে কালীগঞ্জের অন্যান্য ইউনিয়নগুলোতে ডেঙ্গু রোগীর সন্ধান মিলেছে। ডেঙ্গুর কারণে উপজেলাব্যাপী আতঙ্ক বিরাজ করছে। ইতোমধ্যে কালীগঞ্জে একজন মারাও গিয়েছে।

কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা তৈয়েবুর রহমান জানান, এখন পর্যন্ত কালীগঞ্জে ১১০ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে চারজন। উপজেলার শ্রীকলা গ্রামের সিরাজুল গাজীর ছেলে মাদরাসা ছাত্র আলমগীর গাজী (১৪) খুলনায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। সে কালীগঞ্জ হাসপাতালেও চিকিৎসাধীন ছিল।

তিনি বলেন, “ডেঙ্গুতে আতঙ্কের কিছু নেই। সকলকে সচেতন হতে হবে। বাড়ির চারপাশ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা ও মশারি ঝুলিয়ে ঘুমানোর পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে সকলকে।”