• মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪০ রাত

নারায়ণগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

  • প্রকাশিত ০৩:৫৩ বিকেল সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯
বন্দুকযুদ্ধ
বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী হৃদয় ওরফে গিট্টু হৃদয় (৩০) নিহত হয়। ঢাকা ট্রিবিউন

তার বিরুদ্ধে হত্যা, ডাকাতি, মাদক ব্যবসাসহ ১৭টিরও অধিক মামলা রয়েছে। সোনারগাঁও থানার পুলিশের মাদক ব্যবসায়ীদের তালিকায় ১ নম্বর তালিকাভুক্ত আসামি ছিলেন গিট্টু হৃদয়। তাকে ধরতে ১০ হাজার টাকা পুরস্কার ঘোষণা করাও হয়েছিলো

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে র‍্যাবের সঙ্গে `বন্দুকযুদ্ধে' হৃদয় ওরফে গিট্টু হৃদয় (৩০) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। নিহত হৃদয় উপজেলার মোগড়াপাড়া ইউনিয়নের হাবিবপুর এলাকার মৃত সবুজ মিয়া ছেলে। তার বিরুদ্ধে তার বিরুদ্ধে হত্যা,ডাকাতি,মাদক ব্যবসাসহ বিরুদ্ধে ১৭টিরও অধিক মামলা রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে পুলিশ।

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) ভোরে উপজেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সোনারগাঁয়ের চেঙ্গাকান্দি এলাকায় চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি করার সময় এঘটনা ঘটে।

এদিকে ঘটনাস্থল থেকে একটি প্রাইভেটকার, একটি পিস্তল, ২ রাউন্ড গুলিসহ ম্যাগজিন, ৫শ’ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ১টি চাপাতি ও ৪ টি বগিদাসহ তিনজনকে আটক করে র‌্যাব। আটক তিনজন হল- প্রাইভেটকারের ড্রাইভার (তাৎক্ষণিকভাবে নাম জানা যায়নি), গিট্টুর হৃদয়ের সহযোগী জহিরুল ইসলাম ডলার ও সেলিম।

র‌্যাব-১১ এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর তালুকদার নাজমুস সাকিব ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, গোপনসূত্রে আমরা জানতে পারি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে সোনারগাঁয়ের চেঙ্গাকান্দি এলাকা দিয়ে মাদক সরবরাহ করা হবে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে ভোরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চেঙ্গাকান্দি এলাকায় চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি চালানো হয়। এসময় একটি প্রাইভেটকারকে সিগন্যাল দিলে সেটি না থামিয়ে পালানোর চেষ্টা করে।

পরে সামনে থাকা র‌্যাবের সদস্যরা তাদের থামানোর চেষ্টা করলে গাড়ির জানালা খুলে র‍্যাবে সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। র‍্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুঁড়লে একপর্যায় একজন গুলিবিদ্ধ হয়। এসময় আহত হয় র‌্যাবের দু’জন সদস্য । গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে তার পরিচয় সনাক্ত করলে জানা যায় তার নাম হৃদয় ওরফে গিট্টু হৃদয়। তার বিরুদ্ধে হত্যাসহ ১৭টিরও অধিক মামলা রয়েছে।

র‌্যাব আরো জানায়, এসময় প্রাইভেট কারের চালকসহ গিট্টু হৃদয়ের ৩ সহযোগীকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

গিট্টু হৃদয়ের পরিচয় নিশ্চিত করে সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.মনিরুজ্জামান ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, তার বিরুদ্ধে হত্যা, ডাকাতি, মাদক ব্যবসাসহ বিরুদ্ধে ১৭টিরও অধিক মামলা রয়েছে। সোনারগাঁও থানার পুলিশের মাদক ব্যবসায়ীদের তালিকায় ১ নম্বর তালিকাভুক্ত আসামি ছিল গিট্টু হৃদয়। তাকে ধরতে ১০ হাজার টাকা পুরস্কার ঘোষণা করাও হয়েছিলো।

সোনারগাঁও থানা পুলিশ জানায়, গত মাস চারেক আগেও হৃদয়কে ডিবি পুলিশ গ্রেফতার করেছিল। পরে তিনি জামিনে বের হয়ে যান। হৃদয় কমপক্ষে পাঁচটি মাদক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি।