• শুক্রবার, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:১৭ রাত

'আল্লাহর পথে চলিলাম' লিখে হারিয়ে যাওয়া সেই কিশোর উদ্ধার

  • প্রকাশিত ০৪:০৩ বিকেল সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯
নিখোঁজ স্কুলছাত্র
নিখোঁজ স্কুলছাত্র মোহায়মিনুল ইসলাম। ঢাকা ট্রিবিউন

সাতক্ষীরা থেকে নিখোঁজের একদিন পর তাকে চট্টগ্রাম থেকে উদ্ধার করা হয়।

সাতক্ষীরায় "আধ্যাত্মিক" ভাষায় চিঠি লিখে বাড়ি থেকে পালিয়ে যাওয়া পুলিশ কন্সটেবলের ছেলে স্কুলছাত্র মোহায়মিনুল ইসলাম মমিনকে (১৪) উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাতে চট্রগ্রাম বন্দর এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

মোহায়মিনুল ইসলাম সাতক্ষীরা সদর থানার পুলিশ কন্সটেবল মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে ও সাতক্ষীরা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র।

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, শনিবার মধ্যরাতে চট্রগ্রামের বন্দর থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়েছে। তাকে সাতক্ষীরায় ফিরিয়ে আনা হচ্ছে। কী কারণে বা কাদের সঙ্গে বাড়ি ছেড়ে সেখানে গিয়েছিল সেসব বিষয়ে এখনো জানা যায়নি। জিজ্ঞাসবাদ শেষে বিস্তরিত জানা যাবে।

বাড়িতে চিরকুট লিখে শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) রাতে মোহায়মিনুল ইসলাম এশার নামাজ পড়ার কথা বলে শহরের মনজিতপুর এলাকার ভাড়া বাসা থেকে বেরিয়ে যায়। এরপর থেকে নিখোঁজ ছিল সে।


আরও পড়ুন : 'আল্লাহর পথে চলিলাম' লিখে বাড়ি ছাড়লো কিশোর


চিরকুট সে লিখে রেখে যায়, "আমি গৃহপলায়ন করি নাই। গৃহত্যাগ করিলাম। সত্যের সন্ধানে যাচ্ছি। আমাকে খোঁজাখুঁজি করে লাভ নেই। সত্যের মধ্যে সত্য আছে। কাজের ভেতরে কাজ আছে। দীর্ঘকালে আমাকে কেহ চিনে নাই, জানে নাই আমার কাজকে। আজ হয়তো প্রভুর অনুমতিক্রমে আমার সময় শেষ। তাই আল্লাহর পথে চলিলাম। ইহা স্বাভাবিক। অন্তত, মুসলিমের পক্ষে। আমি সত্য লইয়াই আঁধার রাতে বাহির হইয়াছি।"

নিখোঁজের পর তার পরিবার জানায়, মোহায়মিনুল অত্যন্ত চুপচাপ স্বভাবের ছেলে। তার কোনো বন্ধুও নেই। দুই-একজন ছেলের সঙ্গে সে স্কুলে যেত। লেখাপড়ার পাশাপাশি সব সময় "আল্লাহর পথ" নিয়ে ভাবতো। কথা বলতো এবং কবিতা লিখতো। ক্লাসে তার রোল নম্বর এক।