• রবিবার, অক্টোবর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৩ রাত

কর্মীদের দাবি উপেক্ষা করে মনোনয়ন প্রত্যাহার করলেন রংপুরের রেজাউল

  • প্রকাশিত ০৭:০০ রাত সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯
রংপুর ৩ আওয়ামী লীগ
রংপুর ৩ আসনের উপ-নির্বাচন থেকে সোমবার মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী রেজাউল করিম রাজু ঢাকা ট্রিবিউন

নেতা-কর্মীদের বুঝিয়ে রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে যাওয়ার সময়েও তারা রেজাউলের পথরোধ করেন 

মাঠপর্যায়ের নেতা-কর্মীদের দাবি উপেক্ষা করে রপুর-৩ (সদর) আসনের উপ-নির্বাচন থেকে মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী রেজাউল করিম রাজু।

সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে দলীয় নেতা-কর্মীদের নগরীর বিক্ষোভ ও বাধা না মেনে কয়েকজন সমর্থককে সঙ্গে নিয়ে জেলা রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আবেদন করেন।

এর আগে দুপুর থেকেই নগরীর কাছারী বাজার এলাকায় আওয়ামী লীগ , ছাত্রলীগ, মহিলা লীগ, যুবলীগসহ দলের বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ের প্রবেশপথে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকেন। 

বিকেল ৪টার দিকে রেজাউল করিম সেখানে গেলে নেতা-কর্মীরা পথের মাঝেই শুয়ে পড়ে তাকে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার না করার অনুরোধ জানান। এসময় নেতা-কর্মীরা নগরীর কাছারী বাজার এলাকায় নগরীর প্রধান সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকেন। 

নেতা-কর্মীদের বুঝিয়ে রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে যাওয়ার সময়েও তারা রেজাউলের পথরোধ করেন। 

বেশ কিছুক্ষণ পর নেতা-কর্মীদের সরিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে গিয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আবেদন করেন রেজাউল। 

রিটার্নিং অফিসার জিএম শাহাতাব উদ্দিন আবেদন গ্রহণ করে রেজাউলের প্রার্থিতা প্রত্যাহারের বিষয়টি জানান। 

এদিকে, মনোনয়ন প্রত্যাহারের পর আওয়ামী লীগ প্রার্থী রেজাউল সাংবাদিকদের বলেন, “রংপুরের মানুষের দুর্ভাগ্য বারবার আমাদেরকে কৌশলগত কারণে সরে যেতে হচ্ছে। রংপুরের জনগণ এ আসনে নৌকার প্রার্থীকে দেখতে চেয়েছিলেন। কিন্তু জাতীয় রাজনীতির প্রেক্ষাপট বিবেচনায় আমাকে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা।”

প্রসঙ্গত, রংপুর-৩ আসন থেকে আওয়ামী লীগ প্রার্থী রেজাউল করিম প্রার্থিতা প্রত্যাহার করায় এখন মোট প্রার্থীর সংখ্যা ৬ জন। তারা হলেন- জাতীয় পার্টির শাদ এরশাদ, বিএনপির রিটা রহমান, জাতীয় পার্টির বিদ্রোহী প্রার্থী এরশাদের ভাতিজা আসিফ শাহারিয়ার (স্বতন্ত্র), এনপিপির সফিউল আলম, খেলাফত মজলিসের তৌহিদুর রহমান ও গণফ্রন্টের কাজী মো. শহিদুল্লা। 

মঙ্গলবার প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে এবং ৫ অক্টোবর রংপুর সদর-৩ আসনে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা জিএম শাহাতাব উদ্দিন।