• বৃহস্পতিবার, জুন ০৪, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:৪৫ রাত

মিলার: সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন ঠেকাতে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা অব্যাহত থাকবে

  • প্রকাশিত ০৩:২০ বিকেল সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯
মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার
ঢাকা নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল আর মিলার। ফাইল ছবি/সৌজন্যে

সন্ত্রাসীদের কাছে অর্থায়ন আসা ঠেকাতে আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক প্রচেষ্টার ওপরও গুরুত্বরোপ করেন মার্কিন দূত

অর্থপাচার ও সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন ঠেকাতে এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার।

বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর একটি হোটেলে সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন বিষয়ক এক কর্মশালার উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন।

রাষ্ট্রদূত বলেন, "সন্ত্রাসবাদ এবং সন্ত্রাসী ও তাদের সংগঠনগুলোর অর্থায়ন চিহ্নিত করে সেসব বন্ধের লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।"

সন্ত্রাসীদের কাছে অর্থায়ন আসা ঠেকাতে আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক প্রচেষ্টার ওপরও গুরুত্বরোপ করেন মার্কিন দূত।

তিনি আরও বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশ এমন আইনগত প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠায় কাজ করে যাচ্ছে, যা আইনের শাসনকে শ্রদ্ধা করবে এবং নাগরিকদের কাছে শ্রদ্ধার স্থান পাবে।

অর্থ পাচার ও সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন ঠেকাতে শুধু কঠোর আইনই যথেষ্ট নয় উল্লেখ করে মিলার বলেন, আইনগুলো দক্ষ তদন্তকারী, প্রসিকিউটর ও বিশ্লেষকদের মাধ্যমে বাস্তবায়ন হতে হবে।

বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইনটেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ), যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জাস্টিস’স ন্যাশনাল অ্যাডভোকেসি সেন্টার এবং ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (এফবিআই) লস অ্যাঞ্জেলস ও মিয়ামি ডিভিশনস যৌথভাবে এ কর্মশালার আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বিএফআইইউ প্রধান আবু হেনা মোহাম্মাদ রাজি হাসান বক্তব্য রাখেন।

আইন, বিচার ও সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্রণালয়, বিএফআইইউ, দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক), জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর), অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি), মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়, শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা এ কর্মশালায় অংশ নেন।

রাষ্ট্রদূত মিলার জানান, যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস ২০০৫ সাল থেকে প্রসিকিউটোরিয়াল ডেভেলপমেন্টের জাস্টিস অফিস, অ্যাসিসটেন্স অ্যান্ড ট্রেইনিং (ওপিডিএটি) এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের (যুক্তরাষ্ট্রের) সাথে বাংলাদেশি সহকর্মীদের সাথে অংশীদার হয়েছে।

এ ধরনের যৌথ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বাস্তবভিত্তিকভাবে প্রসিকিউটর, তদন্তকারী এবং নিয়ন্ত্রকরা একে অপরকে সহযোগিতার মাধ্যমে (অর্থ পাচার ও সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন ঠেকাতে) গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।

50
50
blogger sharing button blogger
buffer sharing button buffer
diaspora sharing button diaspora
digg sharing button digg
douban sharing button douban
email sharing button email
evernote sharing button evernote
flipboard sharing button flipboard
pocket sharing button getpocket
github sharing button github
gmail sharing button gmail
googlebookmarks sharing button googlebookmarks
hackernews sharing button hackernews
instapaper sharing button instapaper
line sharing button line
linkedin sharing button linkedin
livejournal sharing button livejournal
mailru sharing button mailru
medium sharing button medium
meneame sharing button meneame
messenger sharing button messenger
odnoklassniki sharing button odnoklassniki
pinterest sharing button pinterest
print sharing button print
qzone sharing button qzone
reddit sharing button reddit
refind sharing button refind
renren sharing button renren
skype sharing button skype
snapchat sharing button snapchat
surfingbird sharing button surfingbird
telegram sharing button telegram
tumblr sharing button tumblr
twitter sharing button twitter
vk sharing button vk
wechat sharing button wechat
weibo sharing button weibo
whatsapp sharing button whatsapp
wordpress sharing button wordpress
xing sharing button xing
yahoomail sharing button yahoomail