• রবিবার, নভেম্বর ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৮ রাত

বড় বোনকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে ছোট বোনকে ধর্ষণ, যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার

  • প্রকাশিত ০৫:৫২ সন্ধ্যা সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯
কামরুল হাসান কামাল
মানিকগঞ্জে ধর্ষণ এবং ধর্ষণের ভিডিও ইন্টানেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে কামরুল হাসান কামালকে শনিবার গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ছবি : ঢাকা ট্রিবিউন

কিছুদিন আগে ওই কিশোরীর বড় বোনকে বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে যান কামাল

মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলায় এক কিশোরীকে ধর্ষণ করে সেই ভিডিও ইন্টানেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে কামরুল হাসান কামাল নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) ওই কিশোরীর বাবা ঘিওর থানায় মামলা করেন। এরপর শনিবার রাতেই কামালকে গ্রেপ্তার করা হয়। 

কামাল ঘিওর উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য বলে জানা গেছে।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, কিছুদিন আগে ওই কিশোরীর বড়বোনকে বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে যান কামাল। পরবর্তীতে, তাদের পরিবারের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে ওঠে তার। সেইসূত্রে ওই কিশোরীকে বিভিন্ন স্থানে বেড়াতে নিয়ে যেতেন কামাল। দুইমাস আগে তিনি ভুক্তভোগী কিশোরীকে নিয়ে ঢাকায় বেড়াতে আসেন এবং একটি হোটেলে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ওঠেন। হোটেলের কক্ষে ভয় দেখিয়ে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করেন এবং ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করেন কামাল। পরে তা ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে তাকে নিয়মিত ধর্ষণ করতেন তিনি। 

অভিযোগে বলা হয়, সেই ভিডিও লোক মারফত দেখতে পান কিশোরীর বাবা। এরপর শনিবার তিনি ঘিওর থানায় বাদী হয়ে মামলা করেন।

ঘিওর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশরাফুল ইসলাম জানান রবিবার কামালকে আদালতে হাজির করে পাঁচদিনের রিমান্ড চাওয়া হয়েছে। তবে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেওয়ায় তাকে জেল-হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয় আদালত।

এদিকে ধর্ষণ ও পর্নোগ্রাফি মামলায় গ্রেপ্তার কামালকে যুবলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহবুবুর রহমান জনি।