• বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৮ রাত

বান্দরবান সীমান্তে মাইন বিস্ফোরণে রোহিঙ্গা শরণার্থী নিহত

  • প্রকাশিত ০৫:২০ সন্ধ্যা সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯
বান্দরবান

বান্দরবানে মিয়ানমারের সীমান্তবর্তী উপজেলা নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু, ঘুমধুম ও আশারতলী সীমান্তে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা মাইন পুঁতে রাখে বলে অভিযোগ দীর্ঘদিনের।

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় মাইন বিস্ফোরণে আব্দুল মজিদ (৩২) নামে এক রোহিঙ্গা শরণার্থী নিহত হয়েছেন।

সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ভোররাতে উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের বাইশফাঁড়ি সীমান্তে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, ভোররাতে স্থানীয়রা বিস্ফোরণের শব্দ পেয়ে পুলিশ ও বিজিবিকে খবর দেয়। সকাল থেকে দুই বাহিনী তল্লাশি শুরু করে।দুপুরের দিকে ক্ষতবিক্ষত মরদেহটির সন্ধান পাওয়া যায়।

নিহত আব্দুল মজিদ কক্সবাজারের কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা আব্দুল মালেকের ছেলে।

নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম তদন্তকেন্দ্রের ইনচার্জ ইমন চৌধুরী জানান, মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য রাতে বান্দরবান সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে।

প্রসঙ্গত, গত ৩ সেপ্টেম্বর উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তে থুয়াইংগা ঝিড়ি এলাকায় মাইন বিস্ফোরণে আরও এক রোহিঙ্গা যুবক নিহত হয়।

বান্দরবানে মিয়ানমারের সীমান্তবর্তী উপজেলা নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু, ঘুমধুম ও আশারতলী সীমান্তে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা মাইন পুঁতে রাখে বলে অভিযোগ দীর্ঘদিনের।