• শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৬ রাত

ইসি: রোহিঙ্গাদের এনআইডি সরবরাহে কমিশনের ১৫ কর্মকর্তা-কর্মচারী জড়িত

  • প্রকাশিত ০৭:১৯ রাত সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯
জাতীয় পরিচয়পত্র
প্রতীকী ছবি সৈয়দ জাকির হোসাইন/ঢাকা ট্রিবিউন

ডিজি জানান, তারা ধাপে ধাপে জড়িতদের নাম প্রকাশ করবেন

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক (ডিজি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাইদুল ইসলাম বলেছেন, রোহিঙ্গাদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) দেওয়ার সঙ্গে কমিশনের ১৫ কর্মকর্তা-কর্মচারী জড়িত।

বার্তা সংস্থা ইউএনবি জানিয়েছে, তদন্ত কমিটির প্রাথমিক প্রতিবেদন জানাতে সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) তার কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘‘কতজন কর্মকর্তা-কর্মচারী জড়িত সে সম্পর্কে আমাদের নির্দিষ্ট তথ্য রয়েছে। আমরা তদন্তের স্বার্থে তাদের নাম প্রকাশ করছি না। তবে সংখ্যাটি ১৫-এর বেশি নয়।’’

ডিজি জানান, তারা ধাপে ধাপে জড়িতদের নাম প্রকাশ করবেন। ‘‘ইসি তাদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় সবকিছু করবে।’’

তিনি আরও বলেন, কমিশন সব ধরনের অনিয়মের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছে এবং এনআইডি তথ্যভাণ্ডার সুরক্ষিত রাখার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমরা জিরো টলারেন্স দেখাব।

 ‘‘আমরা এখন পর্যন্ত ৬১ জন রোহিঙ্গার একটি তালিকা পেয়েছি যারা ভোটার হওয়ার চেষ্টা করেছিল। আমরা তাদের তথ্য যাচাই-বাছাই করছি যে তারা কীভাবে এই চেষ্টা করলো এবং তাদের কারা সহযোগিতা করেছে। এর সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে,’’ জানান ডিজি।