• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৮ রাত

সংস্কৃতি ও পর্যটন মন্ত্রণালয়কে একীভূত করার সুপারিশ

  • প্রকাশিত ০৬:৩৮ সন্ধ্যা সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৯
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার- লোগো

শুধুমাত্র ঢাকাকেন্দ্রিক না থেকে বাংলাদেশের প্রতিটি জেলার নিজস্ব লোকসংগীত সুরসহ সংগ্রহ করার লক্ষ্যে অধিকতর কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের সুপারিশ করা হয়

দেশের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের বিকাশ ও পর্যটন শিল্পের উন্নয়নে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং পর্যটন মন্ত্রণালয়কে একীভূত করে একটি একক মন্ত্রণালয় গঠনের সুপারিশ করা হয়েছে।

সংস্কৃতি বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সভাপতি সিমিন হোসেন (রিমি)-র সভাপতিত্বে বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সভায় এ সুপারিশ করা হয়।

সভায় উপস্থিত ছিলেন- কমিটির সদস্য সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, মমতাজ বেগম, কাজী কেরামত আলী, অসীম কুমার উকিল এবং সুবর্ণা মুস্তাফা।

সভায় লোকসংগীত সংরক্ষণের বিষয়ে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির কার্যক্রম বিশেষভাবে চিলমারী (কুড়িগ্রাম) এলাকার বিলুপ্তপ্রায় ঐতিহ্যবাহী ভাওয়াইয়া সংগীত সংরক্ষণের বিষয়ে আলোচনা এবং নজরুল ইনস্টিটিউট এর চলমান কার্যক্রম সম্পর্কে কমিটিকে অবহিত করা হয়।

লোকসংস্কৃতি সংগ্রহ ও সংরক্ষণ কার্যক্রমের মাধ্যমে ২০১৬ সালে ১৩ হাজার ৪৮১ টি গান সংরক্ষণ করা হয়, যা বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি ও ন্যাশনাল আর্কাইভে সংরক্ষিত আছে বলে সভায় জানানো হয়।

সভায় শুধুমাত্র ঢাকাকেন্দ্রিক না থেকে বাংলাদেশের প্রতিটি জেলার নিজস্ব লোকসংগীত সুরসহ সংগ্রহ করার লক্ষ্যে অধিকতর কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

এছাড়া, সভায় কবি নজরুল ইনস্টিটিউটের ‘নজরুলের অপ্রচলিত গানের সুর সংগ্রহ, স্বরলিপি প্রণয়ন, সংরক্ষণ ও প্রচার এবং নবীন প্রজন্মকে উদ্বুদ্ধকরণ’ শীর্ষক প্রকল্প চলমান রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়। ইনস্টিটিউট থেকে নজরুল জীবন ভিত্তিক তথ্যচিত্র ‘নজরুল জীবন পরিক্রমা’ এবং ১৭ খন্ডে ‘নজরুল সমগ্র’ প্রকাশ করা হয়েছে বলে সভায় জানানো হয়।

অন্যান্যদের মধ্যে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয় ও সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারাও সভায় উপস্থিত ছিলেন।