• বুধবার, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪৩ দুপুর

লালমনিরহাটের ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজের সরকারি ল্যাপটপ, মানিব্যাগ চুরি

  • প্রকাশিত ১০:৫০ সকাল সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৯
লালমনিরহাট
ঢাকা ট্রিবিউন

লালমনিরহাট সদর থানার ওসি মাহফুজ আলম মামলার সত্যতা স্বীকার করে ঢাকা ট্রিবিউন’কে বলেন, “বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখা হচ্ছে। মামলা তদন্তের স্বার্থে এই মুহূর্তে কোনকিছুই বলা যাচ্ছে না

লালমনিরহাটের ভারপ্রাপ্ত বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ মোঃ সাব্বির ফয়েজের ব্যবহৃত সরকারি ল্যাপটপ ও মানিব্যাগ চুরির ঘটনায় লালমনিরহাট সদর থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে। ধারা ৪৫৭ / ৩৮০ দন্ডবিধি রুজুর মামলা নম্বর ৬৬(২৪ সেপ্টেম্বর)।

লালমনিরহাট থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর) লালমনিরহাট সদর থানায় জেলা ও দায়রা জজ আদালতের ভারপ্রাপ্ত নাজির মোঃ নুরুজ্জামান মিয়া বাদী হয়ে এই মামলা দায়ের করেন।

জানা গেছে, সাব্বির ফয়েজের HP 240 G6 মডেলের একটি ল্যাপটপ, মানিব্যাগে থাকা জাতীয় পরিচয়পত্র, ক্রেডিক কার্ড ১টি, অপর ১টি কার্ড ও নগদ ৬ হাজার টাকা চুরি হয়ে যায়। মামলা দায়ের হওয়ার পর থেকে বিষয়টি গুরুত্বের সাথে অভিযান চালিয়ে রংপুর থেকে চুরি হওয়া ল্যাপটপ ও মানিব্যাগের জিনিসপত্র উদ্ধার করা হয়েছে বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুলিশের একটি দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছে।

লালমনিরহাট জেলা ও দায়রা জজ আদালত সূত্র ও মামলার এজাহারে জানা যায়, গত সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা পৌনে ৭টায় খোর্দ্দ সাপটানা মৌজাস্থ জেলা পরিষদ ডাকবাংলোর দ্বিতীয় তলার দক্ষিণপার্শ্বের উত্তর দুয়ারী রুম তালাবদ্ধ রেখে প্রতিদিনের মত জেলার অফিসার্স টেনিস ক্লাব মাঠে টেনিস খেলার জন্য যান।

এরপর রাত সাড়ে ৮টায় ফিরে এসে দেখেন রুমের বাইরে থেকে হ্যাজবল লাগানো ও তালাবিহীন রয়েছে এবং রুমে ঢুকে দেখতে পান, টেবিলের উপরে রাখা সরকারি ল্যাপটপটি ও নিজ মানিব্যাগটি নেই।

লালমনিরহাট সদর থানার ওসি মাহফুজ আলম মামলার সত্যতা স্বীকার করে ঢাকা ট্রিবিউন’কে বলেন, “বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখা হচ্ছে। মামলা তদন্তের স্বার্থে এই মুহূর্তে কোনকিছুই বলা যাচ্ছে না।”