• রবিবার, নভেম্বর ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৮ রাত

অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে যৌন হয়রানি, যুবলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষ

  • প্রকাশিত ১১:১৮ সকাল সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯
নাটোর

এতে আহত হয়েছেন চার জন। আহতদের মধ্যে তিন জন স্থানীয় যুবলীগ এবং একজন আওয়ামী লীগ কর্মী

অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে যৌন হয়রানির ঘটনাকে কেন্দ্র করে নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার বাসুদেবপুর এলাকায় যুবলীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছেন চার জন। 

আহতদের মধ্যে তিন জন স্থানীয় যুবলীগ এবং একজন আওয়ামী লীগ কর্মী।

শুক্রবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় বাসুদেবপুর এলাকায় ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের সামনে এ ঘটনা ঘটে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে অনলাইন গণমাধ্যম বাংলা ট্রিবিউন।

আহতরা হলেন- স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কর্মী কুদ্দুস ও তার ছেলে যুবলীগ কর্মী সোহান,  যুবলীগ কর্মী নয়ন ও তার ভাই শান্ত।

নলডাঙ্গা উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক তৌহিদুর রহমান লিটন ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুর রহমান একথা জানিয়েছেন।

লিটন জানান, শুক্রবার বিকেলে সাজিপাড়া এলাকার বাপ্পী তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে নিয়ে বাসুদেবপুর বাজারের দিকে যাচ্ছিলেন। পথে যুবলীগ কর্মী শোয়েব ও তার সঙ্গে থাকা ২-৩ জন ওই গৃহবধূকে যৌন হয়রানি (ইভটিজিং) করে। প্রতিবাদ করায় তারা বাপ্পীকে মারধর করেন। পরে বাপ্পীর শ্বশুর লতিফ এগিয়ে এলে তাকেও তারা মারধর করা হয়। বিষয়টি তারা আওয়ামী লীগ কর্মী কুদ্দুসকে জানালে তিনি মুঠোফোনের মাধ্যমে নয়নকে ঘটনাস্থলে ডাকেন। নয়ন সেখানে যাওয়ার পর কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সংঘর্ষ হয় দুই পক্ষের মধ্যে। এতে চার জন আহত হন। বিষয়টি তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নলডাঙ্গা থানার ওসি শফিকুর রহমান জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।