• বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৪:২৫ বিকেল

থানায় অভিযোগ করার পর গায়ে আগুন দিয়ে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা

  • প্রকাশিত ১০:০৭ রাত সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯
রাজশাহী
রাজশাহীর মানচিত্র।

মামলা করবেন কিনা জানতে চাইলে বেরিয়ে গিয়ে নিজের গায়ে আগুন দেন তিনি

রাজশাহীতে দাম্পত্য কলহ নিয়ে থানায় অভিযোগ দেয়ার পর বাইরে এসে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়েছেন এক কলেজছাত্রী। শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে নগরীর শাহমুখদুম থানার পাশে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

আগুনে দগ্ধ লিজা রহমান (১৮) গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা ও রাজশাহী মহিলা কলেজের দ্বিতীয়বর্ষের ছাত্রী। লিজার স্বামী সাখাওয়াত হোসেনের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার নাচোল উপজেলায়।

জানা যায়, সকালে স্বামীর সাথে লিজার কলহ  হয়। তিনি দুপুরে শাহ মখদুম থানায় যান বিষয়টি মীমাংসার জন্য। সেখানে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদ রানা তাকে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে অভিযোগ করতে বলেন। সেখানে গিয়ে তিনি নাম-ঠিকানা বলার পর মামলা করবেন কি না জানতে চাইলে বেরিয়ে যান। পরে লিজা কেরোসিন কিনে নিজের গায়ে আগুন দেন।

তাকে উদ্ধার করে প্রথমে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। পরে সেখান থেকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বিকাল ৫টার দিকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে পাঠানো হয়।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক সাইফুর ফেরদৌস বলেন, "মেয়েটির শরীরের সামনে কোমরের ওপর থেকে মুখমণ্ডল ও শ্বাসনালীসহ প্রায় ৪৫ শতাংশ পুড়ে গেছে।"

ওসি মাসুদ রানা ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, " ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে সেই ছাত্রী থানায় অভিযোগ করতে আসেনি। তিনি ভিকটিম সেন্টারে অভিযোগ করতে গিয়ে নাম লিখিয়ে চলে যান। পরে তিনি নিজের গায়ে কেরোসিন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান।"