• শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:১৯ রাত

ঠাকুরগাঁওয়ে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি আহত

  • প্রকাশিত ০৭:২৬ রাত সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৯
বিএসএফ
বাংলাদেশ সীমান্তে টহলরত বিএসএফ। ফাইল ছবি এএফপি

বিএসএফ দাবি করে, ‘কিছু বাংলাদেশি নাগরিক চোরাচালানি করতে সীমান্ত অতিক্রম করে ভারতে প্রবেশ করলে তারা রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে।’

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে এক বাংলাদেশি আহত হয়েছেন।

শনিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাতে উপজেলার বেউরঝাড়ী সীমান্তের চড়ইগেদী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

গুলিবিদ্ধ বাংলাদেশির নাম মো. দুলাল (৩০)। দুলাল বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার হরিণমারী এলাকার বড় চড়ুইগতি গ্রামের সবরাতু মোহাম্মদের ছেলে।

ঠাকুরগাঁও ৫০ বিজিবির অধিনায়ক এসএমএন সামিউন্নবী চৌধুরী জানান, রবিবার মধ্যরাতে ব্যাটালিয়নের বেউরঝাড়ী বিওপি হতে আনুমানিক ২ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে সীমান্ত পিলার ৩৭৯/৮-এস এর নিকট দিয়ে ৩/৪ জন বাংলাদেশি চোরাকারবারী ভারতের আনুমানিক ২০০ গজ অভ্যন্তরে প্রবেশ করেন। এ সময় ১৭১ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের বড়বিল্লা ক্যাম্পের টহল দল অনুপ্রবেশকারীদেরকে দেখতে পেয়ে তাদের উদ্দেশ্যে গুলি করলে বাংলাদেশি নাগরিক মো. দুলালের ডান কাঁধে গুলি লাগে। তবে ওই অবস্থায় দুলাল পালিয়ে আসতে সক্ষম হন। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় দুলালকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

সামিউন্নবী চৌধুরী বলেন, “খবর পেয়ে বিজিবির বেউরঝাড়ী বিওপির একটি টহল দল ঘটনাস্থলে গেলেও কাউকে খুঁজে পায়নি। পরে রবিবার দুপুরে এ বিষয়ে পতাকা বৈঠক আহ্বান করা হয়। পতাকা বৈঠকে বাংলাদেশি নাগরিকের ওপর হামলার বিষয়টি অস্বীকার করেছে বিএসএফ। তারা দাবি করে, ‘কিছু বাংলাদেশি নাগরিক চোরাচালানি করতে সীমান্ত অতিক্রম করে ভারতে প্রবেশ করলে তারা রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে’। তবে কোনো বাংলাদেশিকে আটক করা সম্ভব হয়নি বলেও জানান তারা।”