• শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:২৬ দুপুর

গাজীপুরে একটি বানরসহ ৪৮টি দেশি পাখি উদ্ধার, পরে অবমুক্ত

  • প্রকাশিত ১০:১৭ রাত সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৯
বন্যপ্রাণী
অভিযানে উদ্ধারকৃত বন্যপ্রাণীর সঙ্গে আব্দুল্লাহ আস সাদিক (মাঝে)। ছবি: বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিট

অভিযানে দুই প্রজাতির আটটি টিয়া, দুই প্রজাতির ১৫টি শালিক, আটটি মুনিয়া, চারটি বিরল প্রজাতির সবুজ ঘুঘু, ১০টি দেশি ঘুঘু, দুইটি ডাহুক, একটি ময়না ও একটি বানর উদ্ধার করা হয়

গাজীপুরের টঙ্গীবাজারে অভিযান চালিয়ে একটি বানরসহ বিভিন্ন প্রজাতির ৪৮টি দেশি পাখি উদ্ধার করেছে বাংলাদেশ বন বিভাগের বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের সদস্যরা।

রবিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টার দিকে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের পরিদর্শক আব্দুল্লাহ আস সাদিক জানান, বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের পরিচালক এ এস এম জহির উদ্দিন আকনের সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে, নিয়মিত কর্মকাণ্ডের অংশ হিসেবে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে দুই প্রজাতির আটটি টিয়া, দুই প্রজাতির ১৫টি শালিক, আটটি মুনিয়া, চারটি বিরল প্রজাতির সবুজ ঘুঘু, ১০টি দেশি ঘুঘু, দুইটি ডাহুক, একটি ময়না ও একটি বানর উদ্ধার করা হয়।


আরো পড়ুন - কুড়িগ্রাম থেকে আবারও মহাবিপন্ন বনরুই উদ্ধার


আব্দুল্লাহ আস সাদিক ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে পাখি চোরাকারবারিরা পালিয়ে যায় বলে তাদের কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। পরে উদ্ধারকৃত বানর ও পাখিগুলো ঢাকার বোটানিক্যাল গার্ডেনে অবমুক্ত করা হয়।”

তিনি বলেন, “বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইন, ২০১২ অনুযায়ী সকল প্রকার দেশি পাখি ও বন্যপ্রাণী ক্রয়-বিক্রয়, লালন-পালন আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।”


আরো পড়ুন - শকুন সংরক্ষণে বাংলাদেশ, কী করছে সরকার?