• মঙ্গলবার, নভেম্বর ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫০ রাত

ভোটার হতে যাওয়া তিন রোহিঙ্গার কারাদণ্ড

  • প্রকাশিত ০৯:৩২ রাত অক্টোবর ৩, ২০১৯
রোহিঙ্গা ক্যাম্প
ভোটার তালিকায় নাম নিবন্ধন করতে গিয়ে গ্রেফতার তিন রোহিঙ্গা। ঢাকা ট্রিবিউন

‘আটক ব্যক্তিরা নিজেরাই স্বীকারোক্তি দিয়েছে, তারা মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিক। তারা স্থানীয় জনৈক ব্যক্তিকে টাকা দিয়ে ভোটার হতে এসেছিল’

কক্সবাজারের উখিয়ায় ভোটার হতে যাওয়া তিন রোহিঙ্গাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উখিয়ার জালিয়াপালং ইউনিয়নের সোনার পাড়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। পরে ওই তিন রোহিঙ্গার প্রত্যেককে এক মাস করে কারাদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

উখিয়ার অতিরিক্ত নির্বাচন কর্মকর্তা মো. বেদারুল ইসলাম জানান, জালিয়াপালং ইউনিয়নের ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের তথ্য সংগ্রহ ও যাচাইকৃত নাগরিকের ভোটা অর্ন্তভুক্তির দিন ছিল বৃহস্পতিবার। এ দিন বিকেলে ছবি তুলতে আসা ডেইল পাড়া গ্রামের আবদুল হামিদ (৩২), নুর হোসেন (২৮) ও মুর্শিদা বেগমকে (২৫) সন্দেহ হলে উখিয়া নির্বাচন অফিসের ডাটা এন্ট্রি অপারেটর মো. ইসা তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এ সময় তারা রোহিঙ্গা বলে স্বীকার করেন। এরপর ওই তিনজনকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। 

উখিয়ার উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নিকারুজ্জামান চৌধুরী বলেন, “আটক ব্যক্তিরা নিজেরাই স্বীকারোক্তি দিয়েছে, তারা মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিক। তারা স্থানীয় জনৈক ব্যক্তিকে টাকা দিয়ে ভোটার হতে এসেছিল। সংশ্লিষ্ট স্থানীয় ব্যক্তিকেও আইনের আওতায় আনার কাজ চলছে।”

এছাড়াও রোহিঙ্গাদের নামে ইস্যুকৃত জন্ম নিবন্ধন সনদ বাতিলের জন্য সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানকে চিঠি দেওয়া হবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।