• শুক্রবার, এপ্রিল ১০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:৩২ রাত

আবরারকে শেষবারের মতো দেখতে গ্রামের বাড়িতে মানুষের ঢল

  • প্রকাশিত ১০:৫৯ সকাল অক্টোবর ৮, ২০১৯
আবরার
মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আবরারের মরদেহবাহী অ্যাম্বুলেন্সটি এসে গ্রামে পৌঁছুলে তাকে দেখতে ঢল নামে গ্রামবাসীর। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আবরারের  মরদেহবাহী অ্যাম্বুলেন্সটি তার গ্রামের বাড়িতে এসে পৌঁছালে শেষবারের মতো তাকে দেখতে ঢল নামে মানুষের

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের মরদেহবাহী গাড়িটি কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার কয়া ইউনিয়নের রায়ডাঙ্গা গ্রামের বাড়িতে এসে পৌঁছেছে।

মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তার মরদেহবাহী অ্যাম্বুলেন্সটি এসে গ্রামে পৌঁছালে আবরারকে দেখতে ঢল নামে মানুষের।

এরআগে মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে আবরারের মরদেহবাহী অ্যাম্বুলেন্সটি কুষ্টিয়া শহরের পিটিআই রোড এলাকায় তার নিজ বাড়িতে পৌঁছায়। এদিকে শেষবারের মতো আবরারকে দেখতে ভোররাত থেকেই সেখানে ভিড় জমান আত্মীয়-স্বজন ও প্রতিবেশীরা।

শহরের পিটিআই রোড এলাকার প্রতিবেশী ও আত্মীয়-স্বজনের চোখের জলে ভারী হতে থাকে পুরো এলাকার পরিবেশ। এরপর সকাল সাড়ে ৬ টায় পিটিআই রোডস্থ স্থানীয় সাংসদ মাহবুব উল আলম হানিফ এমপির বাসভবনের সামনে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

নিহত আবরারের ছোটভাই ফাইয়াজ জানান, “ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ভাইয়ার লাশ কুষ্টিয়া এসে পৌঁছায়। এরপর সকাল সাড়ে ৬ টায় পিটিআই রোডস্থ নিজ বাসভবনের সামনে দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।”

এরপর ১০টার দিকে কুমারখালীর উপজেলার কয়া ইউনিয়নের রায়ডাঙ্গা গ্রামে তৃতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।