• শনিবার, ডিসেম্বর ০৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৪:৪৮ বিকেল

১৫ ডিসেম্বর থেকে অবৈধ বিদেশি ডিটিএইচ সার্ভিস বন্ধের নির্দেশ

  • প্রকাশিত ০৮:২৪ রাত অক্টোবর ৯, ২০১৯
ডিটিএইচ ডাইরেক্ট টু হোম
প্রতীকী ছবি (সংগৃহীত)

তথ্যমন্ত্রী জানান, আগে বিদেশ থেকে সিনেমা এনে বাংলাদেশ দেখানো হতো। এখন যেকোনো বিদেশি সিনেমা ডাবিং করতে হলে বাংলাদেশ সরকারের অনুমতি লাগবে

আগামী ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে অবৈধ বিদেশি ডাইরেক্ট টু হোম (ডিটিএইচ) সার্ভিস বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, “অবৈধ বিদেশি ডিটিএইচ সার্ভিস চালু হওয়ার পরে বাংলাদেশ থেকে প্রতিবছর ৭০০-৮০০ কোটি টাকা হুন্ডির মাধ্যমে বিদেশে চলে যাচ্ছে, যা দেশের জন্য ক্ষতিকর।”

বুধবার (৯ অক্টোবর) সচিবালয়ে টিভি শিল্পী, নাট্যকার ও অনুষ্ঠান নির্মাতাদের সার্বজনীন সংগঠন এফটিপিও (ফেডারেশন অব টিভি প্রফেশনালস অর্গানাইজেশনস) এর সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সরকারের অনুমোদন ছাড়া বাংলাদেশে অনেক অবৈধ বিদেশি কোম্পানি ডিটিএইচ এর মাধ্যমে ডা্উন লিংক করে সরাসরি বিদেশি চ্যানেল দেখানো হচ্ছে, যা সম্পূর্ণ অবৈধ। এরকম অনেক বিদেশি কোম্পানি সরকারের অনুমতি ব্যতীত এতদিন চালিয়ে আসছে। আগামী ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে অবৈধ বিদেশি ডিটিএইচ সার্ভিস বন্ধ করতে হবে। 

অন্যথায় বন্ধের জন্য ১৬ ডিসেম্বর থেকে আমরা মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে বলেও জানান মন্ত্রী।

দেশে সম্প্রচারে শৃঙ্খলা আনতে সরকারের বিভিন্ন প্রদক্ষেপের কথা জানিয়ে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, এর আগে আমি বিদেশি চ্যানেলে বাংলাদেশি বিজ্ঞাপন বন্ধ করতে পেরেছি। টিভিতে সম্প্রচারের তারিখ অনুযায়ী চ্যানেলগুলো সিরিয়াল করে দিয়েছি।

তথ্যমন্ত্রী জানান, এফটিপিও নেতাদের যৌক্তিক দাবি বাস্তবায়নে কাজ করা হবে। আগে বিদেশ থেকে সিনেমা এনে বাংলাদেশ দেখানো হতো। এখন যেকোনো বিদেশি সিনেমা ডাবিং করতে হলে বাংলাদেশ সরকারের অনুমতি লাগবে।