• রবিবার, নভেম্বর ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৮ রাত

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গাসহ নিহত ২

  • প্রকাশিত ০৯:১০ সকাল অক্টোবর ১২, ২০১৯
বন্দুকযুদ্ধ
ছবি: প্রতীকী

শনিবার ভোরে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের পর্যটন বাজারের উত্তর পূর্বে মালিরমারছড়া নামক পাহাড়ি এলাকায় এঘটনা ঘটে। পুলিশের দাবি, নিহত দু’জনই তালিকাভুক্ত শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী

কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক রোহিঙ্গাসহ দু'জন নিহত হয়েছে। 

শনিবার (১২ অক্টোবর) ভোরে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের পর্যটন বাজারের উত্তর পূর্বে মালিরমারছড়া নামক পাহাড়ি এলাকায় এঘটনা ঘটে।

পুলিশের দাবি, নিহত দু’জনই তালিকাভুক্ত শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী। তাদের বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মাদক মামলা রয়েছে।

নিহতরা হলেন- টেকনাফের হাতিয়ার গুনার আহাম্মদ হোসেন (৪৫) ও নয়াপাড়া মৌচনী শরণার্থী ক্যাম্পের ডি ব্লকের বাসিন্দা আব্দুর রহমান (৪৬)।

পুলিশের জানায় এঘটনায় পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে দু’টি এলজি ৮ রাউন্ড তাজা কার্তুজ ও ৫ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

টেকনাফ মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাস বলেন, শনিবার ভোরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী ও ৬ মামলার পলাতক আসামি আহম্মদ হোসেন ও আব্দুর রহমানকে আটক করে পুলিশের একটি টিম। পরে তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী, ভোরে ওই পাহাড়ি এলাকায় ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার করতে গেলে আগে থেকে ওঁৎ পেতে অস্ত্রধারী ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়তে থাকে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। এসময় অস্ত্রধারীরা কৌশলে পালিয়ে যায়।

তিনি আরও জানান, উভয়পক্ষের গোলাগুলির পর ঘটনাস্থল থেকে আহম্মদ ও রহমানকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। পরে তাদের টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্যা কক্সবাজারে পাঠান, সেখানে তারা মারা যান।

টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক প্রণয় রুদ্র বলেন, “পুলিশ রাতে দু’জন গুলিবিদ্ধ ব্যক্তিকে নিয়ে আসেন, তাদের শরীরে বুকে, পিঠে তিনটি করে গুলির আঘাত ছিল। এছাড়া আহত পুলিশ সদস্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।”

ওসি জানান, ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কক্সবাজার মর্গে রয়েছে। এঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে।