• বুধবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:৩৫ রাত

বোন দিচ্ছেন কিডনি, প্রতিস্থাপনের টাকা নেই হাফিজুলের

  • প্রকাশিত ০৯:২৪ রাত অক্টোবর ১৪, ২০১৯
যশোর
কিডনি প্রতিস্থাপন করা না হলে আড়াই মাসের মধ্যেই চিরতরে হারিয়ে যাবেন হাফিজুল ইসলাম। ছবি: সংগৃহীত

বিপদে পাশে দাঁড়িয়েছেন ছোট বোন শামীমা আক্তার। একটি কিডনি দিতে চেয়েছেন তিনি। কিন্তু কিডনি যোগাড় হলেও শুধু টাকার অভাবেই নিভে যেতে বসেছে হাফিজুলের জীবনপ্রদীপ

দুই সন্তানের বাবা হাফিজুল ইসলামের দুটি কিডনিই নষ্ট হয়ে গেছে। চিকিৎসকেরা বলেছেন, আড়াই মাসের মধ্যে কিডনি প্রতিস্থাপন করা না গেলে চিরতরে হারিয়ে যাবেন তিনি। তার এই বিপদে পাশে দাঁড়িয়েছেন ছোট বোন শামীমা আক্তার। একটি কিডনি দিতে চেয়েছেন তিনি। কিন্তু কিডনি যোগাড় হলেও শুধু টাকার অভাবেই নিভে যেতে বসেছে হাফিজুলের জীবনপ্রদীপ। কিডনি প্রতিস্থাপন বাবদ খরচ হবে প্রায় ৩০ লাখ টাকা যা যোগাড় করা তার পরিবারের পক্ষে অসম্ভব। 

হাফিজুল ইসলাম যশোর শহরের রেলগেট পশ্চিমপাড়া এলাকার বাসিন্দা। তিনি যশোর জিলা স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র। হাফিজুল বর্তমানে যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ডাক্তার সোলায়মান কবীরের তত্ত্বাবধায়নে আছেন।  

কিডনি রোগে আক্রান্ত হয়ে গত ছয় বছর ধরে চিকিৎসা নিচ্ছেন হাফিজুল। তার বাবাও বয়স্কজনিত নানা রোগে আক্রান্ত। পরিবারের একমাত্র উর্পাজনক্ষম ব্যক্তি হাফিজুলের বড় ভাই আসাদুজ্জামান। হাফিজুলের চিকিৎসার খরচ তার একার পক্ষে বহন করা সম্ভব নয়। তাই সমাজের বিত্তবান ও দানশীল ব্যক্তিদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন হাফিজুল ও তার পরিবার। 

হাফিজুল ইসলামের চিকিৎসায় সহায়তা করতে চাইলে-

বিকাশ নম্বর: ০১৮৮০৭০৭৯০৯(পার্সোনাল)

ব্যাংক: Dutch-Bangla Bank Ltd, Jashore

Account Name: Md Hafizul Islam

Account Number: 163.101.21087

হাফিজুলের মোবাইল নম্বর: ০১৭১৩৯৯২৫৭৮