• বুধবার, নভেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৪:৪৩ বিকেল

মিয়ানমারকে আরও ৫০ হাজার রোহিঙ্গার তালিকা দিলো বাংলাদেশ

  • প্রকাশিত ০৫:১৪ সন্ধ্যা অক্টোবর ১৫, ২০১৯
রোহিঙ্গা
রোহিঙ্গা ক্যাম্প সৈয়দ জাকির হোসেন/ঢাকা ট্রিবিউন

বাংলাদেশ তিন দফায় ৫৫ হাজার রোহিঙ্গার তালিকা দিয়েছিল। কিন্তু মিয়ানমারের অনীহার কারণে তাদের যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়া অত্যন্ত ধীর গতিতে এগোচ্ছে

মিয়ানমারকে আরও ৫০ হাজার রোহিঙ্গার তালিকা দিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত লুইন উ-কে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ডেকে পাঠিয়ে মিয়ানমার অনুবিভাগের মহাপরিচালক দেলোয়ার হোসেন এই তালিকা হস্তান্তর করেন।

এর আগে বাংলাদেশ তিন দফায় ৫৫ হাজার রোহিঙ্গার তালিকা দিয়েছিল। কিন্তু মিয়ানমারের অনীহার কারণে তাদের যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়া অত্যন্ত ধীর গতিতে এগোচ্ছে। খবর বাংলা ট্রিবিউনের। 

এ বিষয়ে সরকারের একজন কর্মকর্তা বলেন, “আমরা এবারে মোট ৫০ হাজার ৫০৬ রোহিঙ্গার তালিকা দিয়েছি।”

বাংলাদেশে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের সম্পূর্ণ তালিকা প্রায় শেষের পথে এবং পর্যায়ক্রমে আরও তালিকা মিয়ানমারের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে তিনি জানান।

এই কর্মকর্তা আরও বলেন, “আমরা যে ৫৫ হাজার রোহিঙ্গার তালিকা দিয়েছি তার মধ্যে দুই দফায় ১২ হাজারের মতো রোহিঙ্গা যাচাই-বাছাই হয়েছে। এরমধ্যে ৮ হাজার ৭০০ রোহিঙ্গাকে তারা তাদের নাগরিক হিসেবে মেনে নিয়েছে। ৬৮ জনকে তারা সন্ত্রাসী হিসেবে চিহ্নিত করেছে বলে আমাদের জানিয়েছে।”

নাম প্রকাশ না করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এই কর্মকর্তা বলেন, “আমরা তাদের বারবার তাগাদা দিচ্ছি যাচাই-বাছাই দ্রুত শেষ করতে। কিন্তু এ বিষয়ে মিয়ানমার অত্যন্ত ধীর গতিতে এগোচ্ছে। গত সেপ্টেম্বরে নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশ, চীন ও মিয়ানমারের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকে বিষয়টি উত্থাপন করা হয় এবং যাচাই-বাছাই দ্রুত শেষ করার তাগাদা দেওয়া হয়।”

আরেকজন কর্মকর্তা বলেন, “প্রথম তালিকা হস্তান্তরের পর মিয়ানমার তালিকা তৈরির পদ্ধতি নিয়ে আপত্তি তুলেছিল। কিন্তু এখন আমরা যেভাবে তালিকা প্রস্তুত করছি, সেটি তারা মেনে নিয়েছে।”